Latest News

দেড় বছরেও মেলেনি কন্যাশ্রীর টাকা, ছাত্রীরা বিক্ষোভ জানাতেই নিষ্পত্তির উদ্যোগ সরকারের

সোমবার হরিপালের নালিকুল কিঙ্করবাটি কৃষি উচ্চ বিদ্যালয়ে দুয়ারে সরকারের ক্যাম্প হয়। সেই ক্যাম্পে গিয়ে পোস্টার হাতে বিক্ষোভ শুরু করেন ওই ছাত্রীরা।

দ্য ওয়াল ব্যুরো, হুগলি: কন্যাশ্রীর টাকা না পেয়ে দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে গিয়ে বিক্ষোভ দেখা‌লেন ছাত্রীরা।

সোমবার হরিপালের নালিকুল কিঙ্করবাটি কৃষি উচ্চ বিদ্যালয়ে দুয়ারে সরকারের ক্যাম্প হয়। সেই ক্যাম্পে গিয়ে পোস্টার হাতে বিক্ষোভ শুরু করেন ওই ছাত্রীরা। তাঁদের অভিযোগ, ২০১৯ সালের এপ্রিল মাসে কন্যাশ্রীর জন্য আবেদন করেছিলেন তাঁরা। কিন্তু এতদিন পরেও কোনও টাকা পাননি।

সরকারের একটি সূত্রের অবশ্য দাবি, এটা অনিচ্ছাকৃত ত্রুটি। আইএফএমএস তথা ইন্টিগ্রেটেড ফাইনান্সিয়াল ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমে ত্রুটির কারণেই টাকা ট্রান্সফার হয়নি। দ্রুত এই ত্রুটি শুধরোনো হচ্ছে। 

বিক্ষোভকারী ছাত্রীদের একজন মাম্পি মাল বলেন, ‘‘যখন উচ্চমাধ্যমিক পড়ি তখন কন্যাশ্রীর জন্য আবেদন করেছিলাম আমরা ৫১ জন ছাত্রী। বর্তমানে আমরা কলেজের দ্বিতীয় বর্ষে পড়ি। এখনও কন্যাশ্রী পাইনি। ব্লক থেকে জেলা, বিধায়ক থেকে শিক্ষা দফতর সর্বত্র ঘুরেছি। যেখানেই গেছি, শুনেছি কারিগরি ত্রুটির কারণে হচ্ছে না। আবার কখনও বলেছে একমাস পর হবে। সেই একমাস এখনও হয়নি।’’ তাঁরা জানান, দুয়ারে সরকারের প্রথম দুটো ক্যাম্পেও তাঁরা আবেদন জানিয়েছিলেন। সেখানেও কোনও লাভ হয়নি। তাই এ দিন স্কুলে তৃতীয় ক্যাম্পে বিক্ষোভ দেখান তাঁরা। এ

ওই ছাত্রীরা প্রত্যেকেই হরিপালের নালিকুল কিঙ্করবাটি কৃষি উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছে। উচ্চ মাধ্যমিক পড়ার সময় এই স্কুল থেকেই কন্যাশ্রীর জন্য আবেদন করেছিল। এতদিন পরে টাকা না পেয়ে বিভিন্ন জায়গায় দরবার করেন তাঁরা। সোমবার নিজেদের স্কুলেই দুয়ারে সরকারের ক্যাম্প হচ্ছে শুনে সেখানে এসে প্ল্যাকার্ড নিয়ে ধর্না দেন তাঁরা। এ দিন দুপুরে স্কুলের সামনে প্রায় ৫০ জন ছাত্রীকে বিক্ষোভ করতে দেখে ছুটে আসেন ক্যাম্পে উপস্থিত সরকারি কর্তারা। তাঁরা সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিতে পারেননি।

পরে জেলা প্রশাসনের এক কর্তা বলেন,‘‘ওই ছাত্রীদের সমস্যার কথা আমরা জানি। নানাভাবে ওঁদের সমস্যা মেটানোর চেষ্টাও চলছে। খুব শীঘ্রই ছাত্রীরা কন্যাশ্রীর টাকা পেয়ে যাবেন বলেই আশা করি আমরা।’’

প্রসঙ্গত, কন্যাশ্রী প্রকল্প মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফ্ল্যাগশিপ প্রকল্পগুলির মধ্যে অন্যতম। এদিন হুগলির ওই অভিযোগ পাওয়ার পর সরকারি সূত্রে জানানো হয়েছে, “ওই ছাত্রীদের ২০১৯-২০ অর্থবর্ষের টাকা আইএফএমএস গেটওয়েতে আটকে ছিল। তা দ্রুত সমাধানের জন্য এনআইসি এবং আইএফএমএস-এর টেকনিক্যাল টিমকে বলা হয়েছে। ৭০০ জন কন্যাশ্রীর জন্য বিলও তৈরি হয়ে গেছে। শীঘ্রই তাদের ব্যাঙ্ক খাতায় টাকা ট্রান্সফার হয়ে যাবে।”

ইতিমধ্যেই দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে রাজ্যের দু’কোটি মানুষ এসেছেন বলে দাবি করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যাঁরা সমস্যা্ নিয়ে এসেছেন, ৬০ শতাংশ ক্ষেত্রে তাঁদের সমস্যা সমাধান হয়েছে বলেও দাবি করেছেন তিনি। দেড় বছর ধরে কন্যাশ্রীর টাকা না পেয়ে হন্যে হয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন হরিপালেরএই ছাত্রীরা। তাঁদের দাবি, দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে দু-দু’বার গিয়েও কোনও লাভ হয়নি তাঁদের। বাধ্য হয়েই আজ বিক্ষোভের রাস্তায় হাঁটলেন তাঁরা।

 

 

You might also like