Latest News

দলীয় কর্মী খুনের অভিযোগে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালের সামনে তুমুল বিক্ষোভ বিজেপির

দুর্গাপুর-ফরিদপুর ব্লকের প্রতাপপুর পঞ্চায়েতের পাশ থেকে এ দিন সকালে স্বরূপের দেহ মেলে। তিনি লাউদোহার পাড়ুলিয়া এলাকার বাসিন্দা ছিলেন। শুক্রবার সন্ধে থেকেই আর খোঁজ মিলছিল না তাঁর। আজ সকালে স্থানীয়রা প্রতাপপুর পঞ্চায়েত কার্যালয়ের পেছনে মৃতদেহ পরে থাকতে দেখে থানায় খবর দেন। পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠায়। সেখানেই শুরু হয় বিজেপির কর্মী-সমর্থকদের বিক্ষোভ।

দ্য ওয়াল ব্যুরো, পশ্চিম বর্ধমান: এক যুবকের মৃত্যুর প্রতিবাদে  দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতাল চত্বরে তুমুল বিক্ষোভ দেখালেন বিজেপি নেতৃত্ব। শুক্রবার সন্ধে থেকে নিখোঁজ থাকার পর সোমবার সকালে লাউদোহা থানার প্রতাপপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের অফিসের পেছন থেকে স্বরূপ শ(২৯) এর মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে স্বরূপ তাঁদের দলের কর্মী দাবি করে প্রবল বিক্ষোভ শুরু করে দেন বিজেপির কর্মী সমর্থকরা। তাঁদের অভিযোগ ছিল, বারবার স্বরূপকে বিজেপি ছাড়ার জন্য চাপ দিচ্ছিল শাসকদলের কর্মীরা। এই প্রস্তাবে রাজি না হওয়াতে তাকে খুন করা হয়েছে।

দুর্গাপুর-ফরিদপুর ব্লকের প্রতাপপুর পঞ্চায়েতের পাশ থেকে এ দিন সকালে স্বরূপের দেহ মেলে। তিনি লাউদোহার পাড়ুলিয়া এলাকার বাসিন্দা ছিলেন। শুক্রবার সন্ধে থেকেই আর খোঁজ মিলছিল না তাঁর। আজ সকালে স্থানীয়রা প্রতাপপুর পঞ্চায়েত কার্যালয়ের পেছনে মৃতদেহ পরে থাকতে দেখে থানায় খবর দেন। পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠায়। সেখানেই শুরু হয় বিজেপির কর্মী-সমর্থকদের বিক্ষোভ।

পশ্চিম বর্ধমান জেলা বিজেপি সভাপতি লক্ষণ ঘোড়ুই বলেন, ‘‘বিধানসভা নির্বাচন যত এগিয়ে আসছে তত বাড়ছে সন্ত্রাস। যার বলি হচ্ছেন বিজেপি কর্মীরা। সন্দীপ ঘোষের পর এবার স্বরূপ শ। যদি দুষ্কৃতীরা ধরা পরে ভালো কথা, আর যদি না হয় তাহলে লাগাতার আন্দোলনে নামা হবে।’’

দফায় দফায় বিজেপি কর্মী সমর্থকদের বিক্ষোভ ঘিরে সোমবার দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালের ভেতর ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে পুলিশ। তৃণমূলের পাল্টা অভিযোগ, মিথ্যে কথা বলছে বিজেপি। স্থানীয় তৃণমীল নেতা সুজিত মুখার্জি বলেন, ‘‘মৃত্যু নিয়ে অহেতুক রাজনীতি করে বাজার গরম করে লাভ নেই। কারণ মানুষ বুঝে গেছে এই দল কেমন। যিনি মারা গেছেন, তাঁর সঙ্গে কোনও রাজনৈতিক দলের কোনও সম্পর্ক ছিল না। অহেতুক পারিবারিক একটা বিষয়কে রাজনীতির রণাঙ্গণে এনে বিজেপি ভোট সর্বস্ব রাজনীতি করছে।’’

বিজেপি কর্মীদের আন্দোলনের জেরে টানটান উত্তেজনা ছড়ায় দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতাল চত্বরে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে  পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এরই মধ্যে স্বরূপের মৃতদেহের ময়নাতদন্ত আসানসোল জেলা হাসপাতালে হবে বলে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতাল থেকে জানানো হলে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। কেন দুর্গাপুরে ময়নাতদন্ত হবে না, সেই প্রশ্ন তুলে পশ্চিম বর্ধমান জেলা বিজেপি সভাপতি লক্ষণ ঘোড়ুইয়ের মৃতদেহ আটকে রেখে বিক্ষোভে সামিল হন বিজেপির কর্মী সমর্থকরা।

You might also like