Latest News

রাস্তা সংস্কারের দাবিতে মালদহে এলাকাবাসীর বিক্ষোভ, শুরু রাজনৈতিক তরজাও

৮ মাস আগে রাস্তা সংস্কারের টেন্ডারও পাশ হয় জেলা পরিষদের অধীনে। কাজও শুরু হয় রাস্তা সংস্কারের। কিন্তু এলাকাবাসীর অভিযোগ সঠিক ভাবে হচ্ছে না সংস্কারের কাজ। তাই এত মাস হয়ে গেলেও এখনও সম্পূর্ণ হয়নি রাস্তা সংস্কার।

দ্য ওয়াল ব্যুরো, মালদহ : দীর্ঘদিন ধরে রাস্তার অবস্থা বেহাল ছিল। তারপর বেশ কয়েকমাস আগে জেলাপরিষদের অধীনে রাস্তা সংস্কারের টেন্ডার পাশ  হয়। সংস্কারের কাজ শুরু হলেও তা অনিয়মিত ভাবে হচ্ছে বলে অভিযোগ এলাকার মানুষের। এরই প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধ করে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখালেন এলাকার মানুষ। এদিকে সংস্কারে অনিয়ম নিয়ে তরজা শুরু হয়ে গেছে তৃণমূল বিজেপির মধ্যে।

মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকার হরিশ্চন্দ্রপুরের গোপাল কেডিয়া মোড় থেকে গোলামোড় পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার রাস্তার অবস্থা দীর্ঘদিন ধরে বেহাল ছিল। প্রায় সাত-আটটি গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করেন। তাই ‌এই রাস্তা সংস্কারের জন্য দীর্ঘদিন ধরে দাবি করে আসছিলেন এলাকার মানুষ। ে ঢিলেমি দেওয়া হচ্ছে রাস্তার কাজে। বারবার অভিযোগ জানিয়েও সুরাহা হয়নি। প্রতিবাদে এ দিন সকালে এলাকাবাসী গোলামোড় এবং বিতোল গ্রামে টায়ার জ্বালিয়ে পথ অবরোধ করে। দ্রুত রাস্তা সংস্কার না হলে আরও বৃহত্তর আন্দোলনে নামার হুমকিও দেয় এলাকাবাসী। এমনকি দেওয়া হয় ভোট বয়কটের ডাক।

বিক্ষোভরত বাসিন্দা বলেন, ‘‘দীর্ঘদিন রাস্তার অবস্থা বেহাল থাকার পর সংস্কারের কাজ শুরু হলেও ৬ মাস ধরে আটকে সেই কাজ। হাসপাতালে রোগী নিয়ে যাওয়া থেকে শুরু করে, ছাত্র-ছাত্রীদের স্কুলে যাওয়া, সবক্ষেত্রে প্রচন্ড সমস্যার মুখে পড়তে হচ্ছে। এরকম একটি গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার এমন বেহাল দশায় চরম ভোগান্তি হচ্ছে সবারই। এই বিক্ষোভ দীর্ঘদিনের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ।’’

আনোয়ারুল নামে আর এক বিক্ষোভকারী বলেন, ‘‘দীর্ঘদিন ধরে সংস্কারের কাজ শুরু হলেও তা সম্পূর্ণ হচ্ছে না। হাসপাতাল, স্কুল, বাজার সবই এই রাস্তার উপর দিয়ে যেতে হয়। ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করতে হয় মানুষকে। দ্রুত সংস্কার সম্পূর্ণ না হলে আমরা ভোট বয়কটও করতে পারি।”

এদিকে রাস্তা সংস্কারে বেনিয়ম নিয়ে শুরু হয়ে গেছে রাজনৈতিক তরজা। কাটমানির জন্য রাস্তার কাজ আটকে বলে কটাক্ষ করেছে বিজেপি। বিজেপি নেতা রূপেশ আগরওয়াল বলেন, ‘‘এটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা। মানুষের এই বিক্ষোভ স্বাভাবিক। সব সরকারি কাজে কাটমানি খায় তৃণমূল। এখানেও কাটমানির চাপে সঠিক ভাবে কাজ হচ্ছে না।’’

হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লক তৃণমূলের সভাপতি মানিক দাস বলেন, ‘‘কিছুটা প্রশাসনিক ত্রুটি হয়েছে। কাজটা হয়ে যাওয়া উচিত ছিল। যে সংস্থা কাজের ঠিকা নিয়েছে লকডাউনের কারণে বিল সঠিকভাবে না পাওয়ার ফলে তারা কাজ সম্পূর্ণ করেনি। প্রশাসনকে বলেছি যাতে দ্রুত সম্পূর্ণ হয় কাজ। কাটমানির কোনও প্রশ্ন আসছে না। বিজেপির কাজ মিথ্যাচার করা। হরিশ্চন্দ্রপুরের বুকে তারা নোংরা রাজনীতি করছে।’’

You might also like