Latest News

মাথার ওপর ছাদ নেই, রাজ্য সরকারের ট্যাব তো বিলাসিতা! টুইট শ্রাবন্তীর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ‘এগিয়ে দে, এগিয়ে দে, দু-এক পা এগিয়ে দে…’

মনে পড়ে গানটা? দেবের বিপরীতে শ্রাবন্তী! বাংলা সিনেমা জগতে বিশাল হিট জুটি। তবে তাঁদের রাজনৈতিক জীবনের পথ বেঁকে গেছে। রাজনীতিতে নবাগতা শ্রাবন্তী বেছে নিয়েছেন গেরুয়া শিবিরকে। তবে মাঠে নেমেই শুরু করে দিয়েছেন খেলা! এক চুলও জমি ছাড়ছেন না কাউকে।

এবার তিনি ট্যুইটারে বর্তমান তৃণমূল কংগ্রেসের সরকারকে ঠুকে পোস্ট করলেন। করোনা আবহে স্কুল কলেজ যেহেতু বন্ধ রয়েছে, শিক্ষাব্যবস্থা পুরোপুরি নির্ভর করছে অনলাইন মাধ্যমে। আর স্মার্ট ফোন না থাকার কারণে অনেক ছাত্রছাত্রী অনলাইনে ক্লাস করতে পারছিল না, তাই সরকারের তরফ থেকে সকলের জন্য ট্যাবের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আর সেই ট্যাবকেই বিলাসিতা বলে টুইট করেন অভিনেত্রী শ্রাবন্তী। তিনি দাবি করেন যেখানে আমফানে বাড়ির চাল উড়ে গেছে, মাথার ওপরে ছাদের ব্যবস্থা রাজ্যসরকার করতে পারেনি, সেখানে ট্যাব বিলাসিতা! তিনি লেখে, “যাদের মাথা গোঁজার কোন ঠাঁই নেই তাদের কাছে ট্যাব কেনা বিলাসিতা নয় কী? আমফানের ঝড়ে উড়েছে চাল,কিন্তু কেন্দ্র থেকে ক্ষতিপূরণ এলেও তা পৌঁছায়নি ক্ষতিগ্রস্তদের হাতে। তাই বাধ্য হচ্ছে মানুষ ট্যাবের টাকাতে বাড়ির ছাদ সরাতে। এটাই পিসির উন্নয়ন।”

অনেকেই শ্রাবন্তীর মন্তব্যের সঙ্গে সহমত হয়েছেন। আবার অনেকেরই মনে হয়েছে সদ্য রাজনীতিতে পা রাখা এই অভিনেত্রী গরীব ছাত্রছাত্রীদের অনলাইনে পড়াশোনাকে হয়তো ভাল চোখে দেখছেন না, না হলে ট্যাবের টাকা নিয়ে প্রশ্ন কেন তুলবেন!

আবার এরই মধ্যে জল্পনার জটকে আরও বেশি জটিল করে ফেলেন তিনি। বিজেপি এখনও প্রার্থী হিসেবে তাঁর নাম ঘোষণা করেনি। কিন্তু যাতে হয় তার জন্যই নিজেকে বিজেপির প্রার্থী হিসাবে ঘোষণা করে দিলেন টলিউড অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। আর তাতেই বঙ্গ–বিজেপির মধ্যে প্রবল অস্বস্তি তৈরি হয়েছে।

জনগণের থেকে আগাম আশীর্বাদও চেয়ে নিয়েছেন অভিনেত্রী। কিন্তু ঠিক কি বললেন অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়?‌ সোমবার পূর্ব মেদিনীপুরের ময়না বিধানসভা কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী অশোক দিন্দার সমর্থনে সভা করেন শ্রাবন্তী। আর সেখান থেকেই নিজের প্রার্থী হওয়ার কথা ঘোষণা করেন শ্রাবন্তী। ময়নার সভা থেকে শ্রাবন্তী বলেন, “এত বছর ধরে আমি অভিনয় জগতে ছিলাম। এখন আমার রাজনৈতিক জীবন শুরু হয়েছে। খুব শীঘ্রই আমি প্রার্থী হতে চলেছি। তাই আপনাদের আশীর্বাদ চাইছি।”

You might also like