Latest News

সৌমিত্রর মূত্রনালীতে সংক্রমণ, শারীরিক অস্থিরতা প্রবল, দ্বিতীয় প্লাজমা থেরাপির পরেও উন্নতি নেই: সূত্র

দ্য ওয়াল ব্যুরো: প্রবল অস্থিরতা ক্রমেই বাড়ছে কোভিড আক্রান্ত বৃদ্ধ অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের। ক্ষণে ক্ষণে রেগে যাচ্ছেন, এমনকি মাঝেমাঝে হাত-পাও ছুড়ছেন, পরিস্থিতি সামাল দেওয়া বেশ কঠিন হয়ে যাচ্ছে– এমনটাই জানা গিয়েছে হাসপাতাল সূত্রে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তাঁর অস্থিরতা এতটাই বেশি, প্রয়োজন থাকা সত্ত্বেও তাঁর মস্তিষ্কের এমআরআই করা যাচ্ছে না। রীতিমতো ‘রেস্টলেস’ আচরণ করছেন তিনি।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, চিকিৎসা বিজ্ঞানের পরিভাষায় এই অবস্থাকে বলা হয় ‘করোনা এনসেফ্যালাইটিস।’ এই অবস্থায় মাঝেমধ্যেই অসম্ভব উত্তেজিত হয়ে পড়েন করোনা আক্রান্ত রোগী। পাশাপাশি সৌমিত্রর মূত্রনালীতে ধরা পড়েছে সংক্রমণ। ইকোলাই জীবাণুও মিলেছে শরীরে। অভিনেতার তন্দ্রাচ্ছন্ন ভাব এখনও কাটছে না, তাঁর জ্বর আসছে প্রায় ১০১ ডিগ্রির আশেপাশে।

করোনা আক্রান্ত হয়ে দিন কয়েক আগে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। তাঁর শরীরে গতকাল একটি প্লাজমা থেরাপির পরে আজ রবিবার আরও একটি প্লাজমা থেরাপি করা হয়েছে বলে হাসপাতাল সূত্রে খবর। তবে এখনও তাঁর শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা এখনও কম রয়েছে বলেই জানা গিয়েছে। চিকিৎসকদের ২৪ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে রয়েছেন তিনি।

অভিনেতার অসুস্থতায় সবচেয়ে চিন্তা বাড়িয়েছে, তাঁর প্রোস্টেট ক্যানসার। পিএসএ বেড়ে গেছে অনেকটা। ইতিমধ্যেই ১৬ জন বিশেষ চিকিৎসকের একটি দল নির্মাণ করা হয়েছে অভিনেতার চিকিৎসার জন্য। 

অক্টোবরের প্রথম দিন থেকেই অসুস্থ ছিলেন সৌমিত্রবাবু। জ্বর, সর্দির মতো কোভিডের উপসর্গ ছিল তাঁর শরীরে। ৫ অক্টোবর তাঁর করোনা পরীক্ষা হয় এবং রিপোর্ট আসে পজিটিভ। ৬ তারিখ সকাল ১১ টা নাগাদ বেলভিউ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। উল্লেখ্য, সৌমিত্রবাবুর শ্বাসকষ্টের সমস্যা অনেকদিনের। ২০০৬ সাল থেকে তিনি সিওপিডিতে আক্রান্ত। গত বছর নিউমোনিয়ার সংক্রমণ ধরা পড়েছিল সৌমিত্রবাবুর। চরম শ্বাসকষ্ট নিয়ে রুবি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল প্রবীণ অভিনেতাকে। আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন তিনি।

এমনিতে কোভিড সংক্রমণ বৃদ্ধদের জন্য বেশ ঝুঁকির। তার উপর সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের অনেকগুলি কো-মর্বিডিটি রয়েছে। তাই তাঁর শারীরিক অবস্থা নিয়ে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে চিকিৎসা মহলে।

You might also like