Latest News

সেই উত্তরপ্রদেশ, বাড়ি ঢুকে শ্লীলতাহানি, তিনতলা থেকে নাবালিকাকে ছুঁড়ে ফেলে দিল দুষ্কৃতীরা, গ্রেফতার ২

দ্য ওয়াল ব্যুরো: উত্তরপ্রদেশে নারী সুরক্ষার বেহাল চিত্র ফের প্রকাশ্যে। ১৭ বছরের মেয়েকে তার বাড়িতে চড়াও হয়ে শ্লীলতাহানির পর তেতলা থেকে ছুঁড়ে ফেলে দিল তিন দুষ্কৃতী, যারা তাকে দীর্ঘদিন ধরে উত্যক্ত করছিল বলে অভিযোগ। মথুরার এক হাসপাতালে স্পাইনাল কর্ডে চোট পাওয়া মেয়েটি মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে। সোমবার রাতে সেখানকার চাথা এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। মথুরা গ্রামীণ এলাকার পুলিশ সুপার শ্রীশ চন্দ্র স্থানীয় থানায় মেয়েটির ভাইয়ের দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন।

সাংবাদিকদের নির্যাতিতার বড় ভাই দীনেশ সিং জানিয়েছে, ওই তিনজন তার বোনকে বছরখানেক হল নিয়মিত বিরক্ত করত। সোমবার রাতে তাঁদের বাবা অপরিচিত নম্বর থেকে ফোন পান।  ফোনের ওপারে থাকা ব্যক্তি তাঁকে লোকেশন বলতে বলে। বাবা নিজের নাম বলেন, চাথা থেকে কথা বলছেন বলেও জানান।  এর কিছুক্ষণ বাদেই মোটরসাইকেলে তিনজন এসে তাদের বাড়িতে ঢুকে পড়ে। মা, বোন সহ পরিবারের লোকজনকে নিগ্রহ  করে। বোনের শ্লীলতাহানি করে। দুজন জোর করে বোনকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। বাধা পেয়ে তাকে তিনতলায় নিয়ে গিয়ে ব্যালকনি থেকে রাস্তায় ছুঁড়ে ফেলে দেয়। তার স্পাইনাল কর্ড ভেঙেছে।  ়

হাড়হিম করা সিসিটিভি ফুটেজে মেয়েটিকে রাস্তায় সজোরে পড়তে দেখা গিয়েছে। রাস্তার লোকজন ছুটে আসেন। তার মধ্যেই চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা। পুলিশ সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেছে। মেয়েটিকে ভর্তি  করা হয়েছে বেসরকারি হাসপাতালে। সিসিটিভি ফুটেজে দুষ্কৃতীদের তাদের বাড়িতে ঢোকার ছবি দেখা যাচ্ছে।

অভিযুক্তরা বিহারের বাসিন্দা বলে খবর। সোমবার রাতেই তাঁরা অভিযোগ জানাতে থানায় গেলে পরদিন আসতে বলা হয় বলে মেয়েটির পরিবারের অভিযোগ। যদিও পুলিশ সুপার (গ্রামীণ) বলেছেন, মঙ্গলবার সকালে মেয়েটির বাড়ির লোকজন থানায় লিখিত অভিযোগ জানানোর পরই এফআইআর রুজু করা হয়েছে। মেয়েটির বাবার দাবি, সেদিন রাতে ফোন করে মেয়ের সঙ্গে কথা বলতে চায় দুষ্কৃতীরা। তিনি রাজি না হওয়ায় তাঁকে গালিগালাজ করা হয়।

 

 

 

 

 

 

You might also like