Latest News

টাকা তুলছে ভুয়ো কোম্পানি, রাজ্যে রমরমা হলদিয়া, আরামবাগে, সতর্ক করল কেন্দ্রীয় সংস্থা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ বোর্ড অফ ইন্ডিয়া (সেবি) জানিয়েছে যে তাদের নজরে এসেছে, কয়েকটি সংস্থা পোর্টফোলিও ম্যানেজমেন্ট পরিষেবা দেওয়ার নাম করে মানুষের কাছ থেকে টাকা সংগ্রহ করছে। এইসব সংস্থা প্রচারপত্র ও সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মকে ব্যবহার করে হাই রিটার্ন দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে মানুষকে প্রলোভিত করছে।

দেখা গেছে, এই সব স্কিমের মাধ্যমে নির্দিষ্ট রিটার্নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তুলনামূলকভাবে কম পরিমাণে টাকা তুলছে এই সব সংস্থা। কয়েকটি সংস্থা এমন নাম ব্যবহার করছে যেগুলি সেবি নথিভুক্ত সংস্থারই মতো। ফলে সাধারণ মানুষ বুঝতে ভুল করছেন। তারা ওইসব সংস্থাকে সেবি নথিভুক্ত বলে ভাবছেন।

সেবি সেই কারণে লগ্নিকারীদের এই ধরনের অবৈধ অর্থ সংগ্রহকারীদের শিকার না হতে সতর্ক করে দিয়েছে। সিকিউরিটি মার্কেটে লগ্নি করার সময় শুধুমাত্র নথিভুক্ত সংস্থার মাধ্যমেই তা করার পরামর্শ দিয়েছে সেবি। তারা বলেছে, পোর্টফোলিও ম্যানেজার (যারা পোর্টফোলিও ম্যানেজমেন্ট স্কিমগুলি পরিচালনা করে) সহ সেবি নথিভুক্ত সংস্থাগুলি কখনই লগ্নির ওপর নিশ্চিত বা স্থায়ী রিটার্নের প্রতিশ্রুতি দেয় না।

কিন্তু এমনই অনেক স্বীকৃতিহীন স্কিম চলছে পনজি স্কিমের মতোই যাদের প্রকৃত অর্থেই সিকিউরিটি মার্কেটে কোনও লগ্নি নেই। সরকারি সূত্রে জানানো হয়েছে, পশ্চিমবঙ্গে হলদিয়া ও আরামবাগে এই ধরনের বেআইনি কারবারের রমরমা চলছে।

সেবি (পোর্টফোলিও ম্যানেজার্স) রেগুলেশন্স, ২০২০ অনুযায়ী একজন পোর্টফোলিও ম্যানেজারকে কর্পোরেট সংস্থা হতে হবে, সেবি নথিভুক্ত হতে হবে এবং একজন গ্রাহকের সঙ্গে তহবিল বা সিকিউরিটিজ পোর্টফোলিও ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত চুক্তি থাকতে হবে।

এছাড়া, একজন পোর্টফোলিও ম্যানেজার একজন গ্রাহকের কাছ থেকে কোনও অবস্থাতেই ৫০ লক্ষ টাকার কমে তহবিল বা সিকিউরিটি সংগ্রহ করতে পারবেন না এবং প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে নিশ্চিত রিটার্নের প্রতিশ্রুতি দিতে পারবেন না।

এই ধরনের স্বীকৃতিহীন সংস্থার স্কিমে টাকা লগ্নির আগে জনগণকে সজাগ ও সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছে ভারত সরকারের সংস্থা সেবি।

You might also like