Latest News

শিলিগুড়িতে একাধিক ওয়ার্ডে গোঁজ, সাসপেন্ড তৃণমূলের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: শিলিগুড়ি পুরভোটের(siliguri poll) মুখে শাসক তৃণমূলে (tmc) গোষ্ঠীকোন্দলের (groupism) কাঁটা। পরিস্থিতি মোকাবিলায় বিব্রত শাসক দলকে বহিষ্কারের (expulsion)  পথে হাঁটতে হল। দেখা যাচ্ছে, জেলার একের পর এক ওয়ার্ডে তৃণমূলের ঘোষিত প্রার্থীর বিরুদ্ধে নির্দল (independents) হিসাবে দাঁড়িয়ে পড়েছেন বিরোধী গোষ্ঠীর লোকজন। গোঁজ প্রার্থীর সংখ্যা একাধিক।

উত্তরবঙ্গে সিপিএমের মুখ অশোক ভট্টাচার্য্যের ভাবশিষ্য বলে এককালে পরিচিত শঙ্কর ঘোষ কিছুদিন আগেই জোড়াফুলে নাম লিখিয়েছেন। তিনি এবার শিলিগুড়ির ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে প্রার্থী। শঙ্করের বিরুদ্ধে নির্দল হিসাবে দাঁড়িয়ে পড়েছেন যুব তৃণমূলের বড় পদাধিকারী বিকাশ সরকার। সঙ্গে সঙ্গে বিকাশকে প্রদেশ তৃণমূল যুব কংগ্রেস কমিটির সাধারণ  সম্পাদক পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছেন যুব কংগ্রেস সভানেত্রী সায়নী ঘোষ। দলবিরোধী কার্যকলাপের বিরুদ্ধে তাঁকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেতৃত্বের। শুধু বিকাশেই থেমে নেই গোঁজ প্রার্থীদের সক্রিয়তা। মাসুম কপূর, মল্লিকা দেবনাথ,  রিনা দাশ একাধিক তৃণমূলের স্থানীয় নেত্রী সরকারি প্রার্থীদের বিরুদ্ধে নির্দল টিকিটে প্রার্থী হয়েছেন। বিকাশের  পাশাপাশি সাসপেন্ড হয়েছেন মাসুম, মল্লিকা। ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডে নির্দল হিসাবে দাঁড়িয়েছেন মল্লিকা। একাধিক ওয়ার্ডে নির্দলদের পাশে দাঁড়ানো ওয়ার্ড প্রেসিডেন্টরা সাসপেন্ড হয়েছেন। ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে বিকাশের পাশে দাঁড়ানো ওয়ার্ড প্রেসিডেন্ট সুদীপ কুন্ডু সাসপেন্ড হয়েছেন। ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডে নির্দল হিসাবে দাঁড়ানো রিনা দাসের স্বামী স্বপন দাস সাসপেন্ড।

 

 

You might also like