Latest News

প্রধানমন্ত্রীর ফোন মুকুল রায়কে, অসুস্থ স্ত্রীর খোঁজ নিলেন মোদী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: প্রবীণ বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে বৃহস্পতিবার সকালে ফোন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মুকুলবাবু সদ্য কোভিড সারিয়ে উঠে আপাতত কাঁচরাপাড়ার বাড়িতে রয়েছেন। তাঁর স্ত্রী কৃষ্ণা রায় অ্যাপোলো হাসপাতালে সঙ্কটজনক অবস্থায় চিকিত্‍সাধীন। জানা গিয়েছে, দুজনেরই শারীরিক অবস্থার খবর নিতে এদিন ফোন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

গত কালই মুকুলবাবুর স্ত্রীকে হাসপাতালে দেখতে যাওয়া নিয়ে ঘটনার ঘনঘটা দেখা গিয়েছিল। সন্ধেবেলা হঠাত্‍ই মুকুলবাবুর অসুস্থ স্ত্রীকে হাসপাতালে যান যুব তৃণমূল সভাপতি তথা ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। হাসপাতালে উপস্থিত মুকুল রায়ের ছেলে শুভ্রাংশুর সঙ্গে খানিকক্ষণ কথা বলেন অভিষেক।

এসব নিয়ে যখন অন্য জল্পনা তৈরি হয়েছে, তার কিছুক্ষণ পরেই জানা যায় বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষও মুকুল-জায়াকে দেখতে হাসপাতালে পৌঁছন।

এদিন প্রধানমন্ত্রীর ফোনকে অনেকেই সেসবের অংশ হিসেবে দেখতে চাইছেন। আবার অনেকের মতে, মুকুলবাবু প্রাক্তন রেলমন্ত্রী। তা ছাড়া তিনি বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতিও। তাই প্রধানমন্ত্রীর ফোন করাটা অস্বাভাবিক নয়। অনেকে বলেন, রাজনীতিতে কী হচ্ছে তার থেকেও বেশি গুরুত্বপূর্ণ কখন হচ্ছে। মুকুলবাবু কোভিড আক্রান্ত হওয়া এবং কৃষ্ণাদেবী হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন হওয়ার পর দুসপ্তাহের বেশি সময় কেটে গিয়েছে।

কদিন আগেই শুভ্রাংশুর গলায় অসন্তোষ ও অভিমান ঝরে পড়েছিল। অসন্তোষ এই কারণেই যে, বিজেপি নিজেদের ভুল ত্রুটি অনুসন্ধান না করে জনতার বিপুল সমর্থনে নির্বাচিত একটি সরকারকে প্রথম থেকেই বিরক্ত করছে। আর অভিমানের বিষয় হল, একমাত্র শুভেন্দু অধিকারী আর দিব্যেন্দু অধিকারী ছাড়া তাঁর কোভিডে আক্রান্ত মা ও বাবার শরীর স্বাস্থ্য নিয়ে বিজেপি পরিবারের কেউ কোনও খোঁজখবর নেননি। দেখা গেল বুধবার অভিষেকের যাওয়ার পর থেকেই বিজেপিও সে পথে হাঁটতে শুরু করল। প্রথমে গেলেন দিলীপ ঘোষ। আজ ফোন করলেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী।

You might also like