Latest News

Paresh Adhikari: পরেশকে নিয়ে হাসির ফোয়ারা ফেসবুকে, ‘শিক্ষিকার গার্জেন কল’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: স্কুলে ছাত্রছাত্রীরা বেশ কয়েকদিন না এলে, টার্মিনাল পরীক্ষায় খারাপ ফলাফল করলে, বা উল্টোপাল্টা কিছু দেখলেই তাদের অভিভাবককে ডেকে পাঠানোর রেওয়াজ বহু প্রাচীন। যাকে চলতি কথায় বলে গার্জেন কল। সেই গার্জেন কল যে এমন মস্করার পর্যায়ে পৌঁছবে কে জানত (Paresh Adhikari)!

গত তিন-চারদিন ধরে রাজনীতি প্রিয় বাঙালির আলোচনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছেন অধিকারী বাবা-মেয়ে। রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পরেশ অধিকারী (Paresh Adhikari) এবং তাঁর মেয়ে অঙ্কিতা অধিকারী। অঙ্কিতার চাকরির নিয়োগ জাল ছিল বলে রায় দিয়েছে হাইকোর্ট। তাঁকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করে ৪১ মাসের বেতনের টাকা ফেরত দিতে বলেছে আদালত। পরেশকে দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করছে সিবিআই। এ নিয়ে শনিবার একটি পোস্ট ফেসবুক জুড়ে ভাইরাল হয়ে গেল। তা ঘুরছে হোয়াটসঅ্যাপেও। তাতে লেখা—‘ইতিহাসে এই প্রথমবার কোনও শিক্ষিকার গার্জেন কল হয়েছে।’

Image - Paresh Adhikari: পরেশকে নিয়ে হাসির ফোয়ারা ফেসবুকে, ‘শিক্ষিকার গার্জেন কল’

ঝড়বৃষ্টিতে রবীন্দ্র সরোবরে রোয়িং বোট উল্টে গেল, মৃত্যু সাউথ পয়েন্টের দুই পড়ুয়ার

তাতে কারও নাম নেই। কিন্তু সবারই মালুম হচ্ছে, আসলে ব্যাপারটা কী নিয়ে। সাধারণ স্কুলে শিক্ষক-শিক্ষিকারা ছাত্রছাত্রীদের গার্জেন কল করেন। আর এখানে ‘শিক্ষিকা’র গার্জেন কল হচ্ছে। অর্থাৎ পরেশকে রোজ ডাকছে সিবিআই।

এমনিতে পরেশ ও তাঁর মেয়েকে নিয়ে ঠাট্টা শুরু হয়েছিল উত্তরবঙ্গ থেকে কলকাতাগামী ট্রেনে উঠে বর্ধমান স্টেশনে নামার পর তাদের উধাও হয়ে যাওয়ার ঘটনার পর থেকে। তার পরের দিন বাম ছাত্র সংগঠন এসএফআই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় টর্চ হাতে খুঁজতে বেরিয়েছিল। পুরোটাই ছিল বিদ্রুপ। রাজনীতিতে চিরকাল এই ফর্ম জায়গা করে নিয়েছে। পরেশের ক্ষেত্রেও অন্যথা হয়নি। তা ছাড়া এই সময়ে নানান কথা, কবিতা, গানের লাইনের প্যারোডি করে জুড়ে দেওয়া হয়েছে পরেশ ও তাঁর মেয়েকে। কেউ খোঁচা দিয়ে লিখেছেন, ‘বাংলা নিজের মেয়েকে চাইলে পরেশ কেন নিজের মেয়েকে চাইবেন না?’ আবার কেউ অঞ্জন দত্তর গানের প্যারোডি করে সোশ্যাল ওয়ালে লিখেছেন, ‘পরেশের মেয়ের চাকরিটা গেছে শুনছ!’ তবে সব কিছুকে ছাপিয়ে গেল ‘শিক্ষিকার গার্জেন কল!’

You might also like