Latest News

সালানপুরে শ্রমিকের মৃত্যুতে উদাসীনতার অভিযোগ, কর্তৃপক্ষের লিখিত আশ্বাসে উঠল বিক্ষোভ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এক কর্তব্যরত শ্রমিকের মৃত্যুতে গাফিলতির অভিযোগ উঠল পশ্চিম বর্ধমানের সালানপুরে। তাঁর দেহ ঘিরে গ্রামবাসীদের ব্যাপক বিক্ষোভে শেষ পর্যন্ত দাবি মতো ক্ষতিপূরণের আশ্বাস দেয় কর্তৃপক্ষ। তাতেই বিক্ষোভ ওঠে।

সালানপুর থানা এলাকার অন্তর্গত দেন্দুয়া কদভিটা ইমপেক্স ফেরো টেক প্রাইভেট লিমিটেড কারখানায় কাজের সময় মঙ্গলবার দুর্ঘটনায় মারা যান কর্মরত আস্তিক মল্লিক (২৯)। তারপরেই অভিযোগ ওঠে লেফট ব্যাঙ্ক নতুন পাড়ার বাসিন্দা আস্তিক মল্লিক মারা গেছেন কারখানার উদাসীনতার ফলে। এৎ খবর রটে যেতেই এলাকার বাসিন্দারা এসে কারখানায় বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন।

আস্তিকের এক সহকর্মী জানান, রাতে ডিউটি ​​করার পরে যখন তিনি বাড়িতে ফেরেন তখন ফের তাঁকে ডেকে পাঠানো হয়। তাঁকে হুমকি দেওয়া হয় যে তখনই কাজে যোগ না দিলে তাঁকে কাজ থেকে ছাড়িয়ে দেওয়া হবে। একথা শুনে শঙ্কিত হয়ে তিনি ফের কাজে যোগ দিতে যান। তাতে অবশ্য কিছুটা দেরি হয়ে যায়। তবে তখন থেকে তাঁকে সারা রাত ডিউটি করতে হয়। ফলে ঘুমাতে পারেননি। ফলে ক্লান্ত হয়ে পড়েন। তার জন্যই দুর্ঘটনা। তাঁর অভিযোগ, “একে এই ভাবে কাজ করে যেতে হয় তার উপরে কারখানায় ন্যূনতম নিরাপত্তা পর্যন্ত নেই। তাই এই ভাবে বারবার শ্রমিকদের মারা যেতে হচ্ছে। তাছাড়া কারখানায় অ্যাম্বুলেন্স থাকা সত্ত্বেও তাতে করে কারখানার কোনও এক আধিকারিকের জন্য বাজার করতে যাওয়া হয়েছিল। সময়মতো হাসপাতালে নিয়ে গেলে হয়তো তাঁকে বাঁচানো যেত।” এই সব কথা শুনেই তাঁর গ্রামের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। মৃতদেহ ঘিরে ক্ষতিপূরণের দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন।

ঘটনার খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই কুলটি থানার চৌরঙ্গি ফাঁড়ি ও কল্যাণেশ্বরী ফাঁড়ির পুলিশ পৌঁছে যায় ঘটনাস্থলে। তাঁরা বিক্ষোভকারীদের বোঝানোর চেষ্টা করেন। খবর পেয়ে সালানপুর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক ভোলা সিং, বিজেপি নেতা মনোজ তিওয়ারি, মোবিন খান, জিতেন রাজওয়ার, মুনমুন ভট্টাচার্য, আশুতোষ তিওয়ারি, বিল্টু সাউ, বিজয় সিং, শঙ্কর ঘোষ প্রমুখ সেখানে পৌঁছে যান। সংস্থার পক্ষে সেখানে উপস্থিত ছিলেন সতীশ সিং। সংস্থার ম্যানেজার এবং চৌরঙ্গিতে নিহত যুবকের পরিবারের মধ্যে ক্ষতিপূরণ সংক্রান্ত একটি বৈঠক হয়।

লেফট ব্যাঙ্কের বাসিন্দা আস্তিক মল্লিক যিনি প্রায় তিন বছর ধরে এই সংস্থায় ঠিকাকর্মী হিসাবে কাজ করছেন। তাঁর পরিবারে বাবা সুভাষ মল্লিক, স্ত্রী মমতা মল্লিক (২৯), একটি ৬ বছরের শিশু আছে। তাঁর পরিবারের তরফে ১০ লক্ষ টাকা এককালীন ক্ষতিপূরণ, তাঁর স্ত্রী মাসিক সাড়ে দশ হাজার টাকা বেতন মৃত আস্তিক মল্লিকের ভাইয়ের ওই কোম্পানিতে চাকরির দাবি করা হয়। কোম্পানি কর্তৃপক্ষ এই দাবিতে লিখিত ভাবে সম্মতি দেওয়ার পরে বিক্ষোভ তুলে নেওয়া হয়।

You might also like