Latest News

উত্তপ্ত ভাঙড়, তৃণমূল কর্মীর তুলোর গুদামে আগুন লাগানোর অভিযোগ, কাঠগড়ায় আইএসএফ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভোটের সময় থেকেই দফায় দফায় অশান্তির খবর এসেছে। কখনও বোমাবাজি, কখনও দলীয় কার্যালয়ে ভাঙচুর, ভোটারদের মারধরের অভিযোগে রণক্ষেত্রের চেহারা নিয়েছে ভাঙড়। ভোট পরবর্তী হিংসাও অব্যাহত। ভাঙড়ের গাবতলা গ্রামে মঙ্গলবার গভীর রাত থেকেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। অভিযোগ, এক তৃণমূল কর্মীর তুলোর গুদামে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে। এলাকা ঘুরে রাতভর তাণ্ডব চালিয়েছে আইএসএফের দুষ্কৃতীরা। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে খবর, গতকাল রাত আড়াইটে নাগাদ তৃণমূল কর্মী সাহাবুদ্দিন মোল্লার তুলোর গুদামে আগুন লেগে যায়। দাউদাউ করে জ্বলে ওঠা গোটা গুদাম। দমকল পৌঁছনোর আগেই পুড়ে ছাই হয়ে যায়। সাহাবুদ্দিনের অভিযোগ, দুষ্কৃতীরা রাতে তাঁর গুদামে আগুন লাগিয়ে দিয়ে পালায়। আইএসএফের আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই এই কাণ্ড ঘটিয়েছে বলে দাবি তৃণমূল কর্মীর।

সকাল থেকেই এলাকায় পুলিশি টহল শুরু হয়েছে। স্থানীয়দের বক্তব্য, ভোট মিটতেই এলাকায় সন্ত্রাস ছড়াচ্ছে আইএসএফ। রাতভর তাণ্ডব চালাচ্ছে। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছে আইএসএফ।

উল্লেখ্য, এবারের নির্বাচনে ভাঙড় বিধানসভার তৃণমূল প্রার্থী মহম্মদ রেজাউল করিমকে ২৬ হাজার ১৫১ ভোটে হারিয়ে জিতেছেন সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী নওশাদ সিদ্দিকি। তৃণমূলের অভিযোগ, আইএসএফ জেতার পরেই তাদের দলীয় কর্মীদের অত্যাচার সীমা ছাড়িয়েছে। স্থানীয় তৃণমূল কর্মীদের বাড়ি বাড়ি ঢুকে ভাঙচুর, মারধর করার অভিযোগ উঠেছে আইএসএফের বিরুদ্ধে। ভোটের সময়েও তৃণমূল-আইএসএফ সংঘর্ষ চরমে উঠেছিল। তৃণমূলের অভিযোগ ছিল, তাদের দলীয় কার্যালয়ে ঢুকে ভাঙচুর চালানো হচ্ছে। ভোটদানে বাধা দেওয়ার অভিযোগও ওঠে আইএসএফের বিরুদ্ধে।

You might also like