Latest News

মুখ্যমন্ত্রীর সফরের আগে শিল্পের দাবিতে পোস্টার পড়ল বোলপুরে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সোমবার বীরভূম সফর রয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। প্রশাসনিক বৈঠক ছাড়াও রয়েছে দলীয় কর্মসূচিও। মঙ্গলবার বোলপুরে রোড শো করবেন তিনি। তার আগেই শিল্পের দাবি তুলে পোস্টার পড়ল বোলপুরের শিবপুর এলাকায়। সেই পোস্টারে দাবি করা হয়েছে, শিল্পের জন্য অধিকৃত জমিতে শিল্প করতে হবে। নইলে সেই জমি কৃষকদের ফেরত দিতে হবে। আর এই পোস্টার ঘিরে শুরু হয়েছে নতুন তরজা।

শিবপুর জমিহারা কৃষক সংগ্রাম মঞ্চের নামে এই পোস্টার পড়েছে শিবপুর মৌজার একাধিক জায়গায়। সেইসব পোস্টারের কোনওটাতে লেখা, ‘বিশ্বভারতীর পাশেই বিশ্ববিদ্যালয় বানানোর নামে কবিগুরুর স্বপ্নের অপমান মানছি না’, কোনও পোস্টারে লেখা, ‘শিল্পের নামে প্রোমোটারি চালানো দুর্নীতিবাজ সরকার চাই না’, আবার কোনও পোস্টারে লেখা, ‘চাষির বুকের উপর বানানো পাঁচিল ভেঙে দাও, গুঁড়িয়ে দাও’।

নতুন তৈরি বিশ্ববাংলা বিশ্ববিদ্যালয়, গীতবিতান আবাসন, বোলপুর বাইপাস এমনকি মহকুমা শাসকের দফতরের সামনেও লাগানো হয়েছে এই পোস্টারগুলি। তবে কে বা কারা এই পোস্টার লাগিয়েছে সে বিষয়ে কিছু জানায়নি প্রশাসন। অবশ্য মুখ্যমন্ত্রীর জেলা সফরের আগে এই ধরনের পোস্টারে স্পষ্টতই অস্বস্তিতে প্রশাসন। মুখ্যমন্ত্রীর সফর চলাকালীন যাতে কোনও ধরনের বিক্ষোভ না হয় সেদিকে খেয়াল রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

রাজ্যে বাম সরকারের আমলে শিল্পের জন্য শিবপুর মৌজার প্রায় ৩০০ একর কৃষিজমি অধিগ্রহণ করা হয়েছিল। এতদিন জমি অধিগ্রহণ হলেও এখনও সেখানে শিল্প হয়নি বলেই কৃষকদের অভিযোগ। তৃণমূল সরকার ক্ষমতায় আসার পরে সেই জমিতেই বিশ্ববাংলা বিশ্ববিদ্যালয়, গীতবিতান, আইটি হাব প্রভৃতি তৈরি করেছে। কিন্তু শিল্প হয়নি। কৃষকদের অভিযোগ, এতে তো তাঁদের দু’দিকই গেছে। শিল্প হলে অন্তত সেখানে কাজ মিলত। তাই তাঁরা চান শিল্পের জন্য নেওয়া জমিতে শিল্পই হোক। নইলে তা তাঁদের ফিরিয়ে দেওয়া হোক। এই নিয়েই বিক্ষোভ তাঁদের।

শিবপুর কৃষক সংগ্রাম মঞ্চের তরফে বলা হয়েছে, কৃষকদের বলা হয়েছিল ওই জমিতে শিল্প হবে। শিল্প হলে সেখানে কর্মসংস্থানও হবে। কিন্তু তা না হওয়ায় একদিকে কৃষকদের জমি গিয়েছে, অন্যদিকে কর্মসংস্থানও হয়নি। তাই আমাদের দাবি, ওই জমিতে শিল্প হোক। নইলে তা চাষযোগ্য করে কৃষকদের ফিরিয়ে দেওয়া হোক। এই বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়েছেন তাঁরা। নইলে বৃহত্তর আন্দোলনে যাওয়ার হুমকি দিয়েছেন তাঁরা। এই বিষয়ে অবশ্য প্রশাসনের তরফে এখনও কিছু জানানো হয়নি।

You might also like