Latest News

দেগঙ্গায় তৃণমূলের গোষ্ঠীসংঘর্ষে ব্যাপক বোমাবাজি, ঘটনাস্থলে বিশাল পুলিশবাহিনী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ফের শাসক দলের গোষ্ঠীসংঘর্ষের ঘটনা ঘটল উত্তর ২৪ পরগনায়। এবার দেগঙ্গায় তৃণমূলের অন্তঃকলহে ব্যাপক বোমাবাজি ও গুলি চালানোর ঘটনা ঘটেছে বলে খবর। এক পক্ষ বন্দুক নিয়ে আর এক পক্ষের বাড়িতে চড়াও হয়েছে বলে অভিযোগ। ঘটনার পরে এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী। যদিও এই ঘটনায় গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কোনও যোগ নেই বলেই দাবি করেছেন স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান।

জানা গিয়েছে, ঘটনার সূত্রপাত দু’দিন আগে হয়। দেগঙ্গায় রোড শো করেন দেগঙ্গার বিধায়ক হালিমা মণ্ডল, প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্ররা। কিন্তু সেই রোড শোয়ে স্থানীয় ব্লক সভাপতি মিন্টু সাজিকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। তারপরেই নাকি বিধায়ক হালিমা মণ্ডলের সঙ্গে ব্লক সভাপতি মিন্টু সাজির গণ্ডগোলের ঘটনা প্রকাশ্যে আসে।

সূত্রের খবর, রবিবার সকাল থেকে মিন্টু সাজির অনুগামী হুমায়ুন চৌধুরীর সঙ্গে হালিমা মণ্ডলের অনুগামী আবদুল মোমিনের সংঘর্ষ শুরু হয়। হুমায়ুন চৌধুরী লোকজন লাঠিসোটা বন্দুক নিয়ে আবদুল মোমিনের বাড়িতে হামলা চালায় বলে অভিযোগ। বাড়ির মেয়েদেরও মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ।

এই ঘটনার পরে অবশ্য গোষ্ঠীসংঘর্ষের কথা অস্বীকার করেছেন দেগঙ্গা ব্লকের চাপাতলা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান হুমায়ুন চৌধুরী। তিনি বলেন, “আবদুল মোমিন এলাকায় দুষ্কৃতী হিসেবে পরিচিত। পুলিশের গাড়ি থেকে অপরাধী ছিনিয়ে নিয়ে যাওয়া থেকে শুরু করে বোমাবাজির একাধিক অভিযোগ রয়েছে ওর উপর। গতকাল স্বাস্থ্যসাথী কার্ড দেওয়ার একটা অনুষ্ঠানে এসে গণ্ডগোল পাকায় আবদুল। তাই স্থানীয়দের ওর উপর রাগ ছিল। আজ আবদুলকে বাজারে ঘুরতে দেখে স্থানীয়রা তাড়া করে। এর সঙ্গে তৃণমূলের কেউ জড়িত নয়।”

অবশ্য এই ঘটনার পর থেকে উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে এলাকা। সেখানে মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী।

You might also like