Latest News

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থার আরও উন্নতি, ফুসফুসের সমস্যা কেটে গিয়েছে অভিনেতার

দ্য ওয়াল ব্যুরোঃ আগের থেকে এখন আরও ভাল রয়েছেন বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। হাসপাতাল সূত্রে খবর, তাঁর শরীরের তাপমাত্রা এখন স্বাভাবিক রয়েছে। এছাড়া ফুসফুসের সমস্যাও পুরোটা কেটে গিয়েছে অভিনেতার। কেউ ডাকলে চোখ খুলছেন তিনি। মানুষকে চিনতে পারছেন। কিছু কথা বলতেও পারছেন সৌমিত্রবাবু।

রবিবার সকালে বেলভিউ হাসপাতাল সূত্রে খবর, এই মুহূর্তে সামান্য আচ্ছন্নভাব রয়েছে অভিনেতার। যদিও সেটা ধীরে ধীরে কেটে যাচ্ছে। তাঁর শরীরে যে সামান্য পটাশিয়ামের ঘাটতি রয়েছে তা সিরিঞ্জ দিয়ে পূরণ করা হচ্ছে। প্রতি দু’ঘণ্টা অন্তর তাঁকে খাবার দেওয়া হচ্ছে। অক্সিজেনের প্রয়োজনীয়তাও অনেকটা কমেছে সৌমিত্রবাবুর। এই মুহূর্তে দিনে ৪ লিটার করে অক্সিজেন লাগছে তাঁর।

হাসপাতাল সূত্রে খবর, শরীরের আচ্ছন্নভাব দূর করার জন্যই মিউজিক থেরাপির সাহায্য নেওয়া হয়েছে গত কয়েক দিন ধরে। তাতে কাজও হয়েছে। পছন্দের রবীন্দ্রসঙ্গীত এবং নিজের সিনেমার পছন্দের গান শুনেছেন সৌমিত্রবাবু। তন্দ্রাচ্ছন্ন ভাব কেটে ভালই ঘুম হয়েছে বর্ষীয়ান অভিনেতার। নতুন করে কোনও শারীরিক জটিলতা সৃষ্টি হয়নি। মেয়ের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলছেন তিনি।

কোভিড রিপোর্ট নেগেটিভ আসার পর থেকে আর জ্বর আসেনি অভিনেতার। তারপর থেকে ক্রমাগতই তাঁর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছে। যদিও এখনও তাঁকে পর্যবেক্ষণে রেখেছেন চিকিৎসকরা। আইটিইউ-তেই রাখা হয়েছে তাঁকে। কোনও রকমের ঝুঁকি নিতে নারাজ চিকিৎসকরা। তাঁর অক্সিজেন স্যাচুরেশন লেভেল স্বাভাবিক। এছাড়াও শরীরে সোডিয়াম এবং পটাশিয়ামের মাত্রা স্বাভাবিক রয়েছে। শুক্রবার রোজের নরম্যাল এবং রেগুলার টেস্ট গুলো করা হয়। তাতে সব রিপোর্টই সন্তোষজনক এসেছে বলে জানা গিয়েছে।

ইতিমধ্যেই কোভিড চিকিৎসার জন্য দু’বার প্লাজমা থেরাপি করা হয়েছে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের। হৃদযন্ত্র, কিডনি, যকৃৎ-সহ অন্যান্য অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সচল রয়েছে বর্ষীয়ান অভিনেতার। প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বেলভিউ হাসপাতালের তরফে জানানো হয় যে গত ৩৬ ঘণ্টা ধরে জ্বর আসেনি সৌমিত্রবাবুর। সেই মুহূর্তে তাঁর শরীরে অক্সিজেন স্যাচুরেশনের মাত্রা ছিল ৯৭ শতাংশ। এর পাশাপাশি চিকিৎসকরা এও বলেন যে তাঁর শরীরে সংক্রমণের মাত্রা অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

হাসপাতালের তরফে আরও জানানো হয়, সৌমিত্রবাবুর মস্তিষ্কে যে স্নায়ুঘটিত সমস্যা ছিল তা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এছাড়া শরীরে ফুসফসের সংক্রমণের জন্য অক্সিজেনের তারতম্য হওয়ায় তাঁকে যে বাইপ্যাপ সাপোর্ট দেওয়া হচ্ছিল, সেটাও অনেকটাই কমানো হয়েছে। রাতে ভাল ঘুম হচ্ছে অভিনেতার। সৌমিত্রবাবুর অবস্থা ক্রমাগত আরও ভাল হচ্ছে। এই খবরে খুশির হাওয়া সবার মধ্যে।

You might also like