Latest News

কালনার ‘পাঁচ টাকার ডাক্তারবাবু’ গৌরাঙ্গ গোস্বামী প্রয়াত, করোনা প্রাণ কাড়ল জনদরদী চিকিৎসকের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পূর্ব বর্ধমানে তাঁর পরিচিতি ছিল গরিবের ডাক্তারবাবু। টানা চল্লিশ বছরেরও বেশি পাঁচ টাকার এক পয়সা বেশি ভিজিট নেননি। রাজনৈতিক, ধর্মীয় বা শ্রেণিগত বিভেদের কারণে কখনও কোনও রোগীকে ফেরাননি। পূর্ব বর্ধমানের কালনায় কান পাতলেই ডাক্তার গৌরাঙ্গ গোস্বামীর (Dr Gouranga Goswami) নাম শোনা যায়। স্থানীয়রা বলেন গরিবের ডাক্তারবাবু। জনদরদী এই চিকিৎসক শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন শনিবার সকালে।

জানা গেছে, করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন ডাক্তারবাবু। কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল তাঁকে। শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। এদিন সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। বযস হয়েছিল ৭১ বছর।

May be an image of 1 person and indoor

চিকিৎসক গৌরাঙ্গ গোস্বামীর বাড়ি কালনার ফটকদ্বার এলাকায়। এলাকাবাসীরা বলেন, সকাল থেকে রাত অবধি ডাক্তারের চেম্বারের রোগীর ভিড় লেগেই থাকত। কালনা শুধু নয়, কলকাতা, কাটোয়া, নবদ্বীপ এমনকি শান্তিপুর থেকেও রোগীরা ভিড় করতেন গৌরাঙ্গ ডাক্তারের চেম্বারে। রোগীর আর্থিক অবস্থা যেমনই হোক না, তাঁর ভিজিট সেই একই—পাঁচ টাকা। এমনকি নিজের পকেট থেকে টাকা দিয়েও দুঃস্থ রোগীর চিকিৎসা করাতেন।

১৯৭৮ সালে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাশ করেন। কিন্তু এমএস শেষ করা আর হয়নি। ততদিনে বামপন্থী রাজনীতির সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছিলেন। শোনা যায়, উত্তরবঙ্গের একটি সরকারি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চাকরি পেয়েও করেননি। কালনাতেই দুঃস্থ রোগীদের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করেন। পাশাপাশি, রাজনীতিও চলতে থাকে সমানতালে। পূর্ব বর্ধমান সিপিএম জেলা কমিটির সদস্য, কালনা শহরের এরিয়া কমিটির সম্পাদক ছিলেন গৌরাঙ্গ ডাক্তার।  তাঁর প্রয়াণে গভীর শোক প্রকাশ করে, সিপিএম পূর্ব বর্ধমানের জেলা সম্পাদক অচিন্ত্য বলেছেন, “কমরেড গৌরাঙ্গর এভাবে চলে যাওয়া কালনা তথা জেলা পার্টির এক বিশাল ক্ষতি। নিজে এতবড় একজন ডাক্তার হয়েও বুঝতে পারল না যে সে কোভিড আক্রান্ত। গত ২১ অগস্ট জেলা কমিটির সভায় এসেছিল অসুস্থতা নিয়ে। পার্টি হারাল এক সুদক্ষ সংগঠক ও একজন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ জননেতাকে।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা সুখপাঠ

You might also like