Latest News

রিয়ার সমর্থনে কংগ্রেসের মিছিল কলকাতায়, বাংলার মেয়েকে ‘অন্যায়ভাবে ফাঁসানোর’ অভিযোগ

দ্য ওয়াল ব্যুরোঃ বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকেই তাঁর বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীকে নিয়ে সরগরম দেশ। সুশান্তের মৃত্যুতে তাঁর কোনও হাত রয়েছে কিনা সেই ঘটনার তদন্ত শুরু করার পরে আর্থিক তছরুপের ঘটনা পেরিয়ে এখন তদন্তের মূল সূত্র আটকে বলিউডের মাদক যোগে। একের পর এক নাম বেরিয়ে আসছে এই ঘটনায়। আর এই কাণ্ডে মূল অভিযুক্ত রিয়া চক্রবর্তী এই মুহূর্তে রয়েছেন বাইকুল্লা জেলে। এই অবস্থায় বাংলার মেয়ের সমর্থনে কংগ্রেস মিছিল করল কলকাতায়।

লোকসভায় কংগ্রেস দলনেতা তথা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরীর নির্দেশে শনিবার প্রদেশ কংগ্রেস দফতর থেকে ওয়েলিংটন পর্যন্ত একটি মিছিল করেন কংগ্রেস কর্মীরা। মিছিলের সামনে যে ব্যানার ছিল, তাতে লেখা ছিল “বাংলার মেয়ে রিয়া চক্রবর্তীর উপর রাজনৈতিক অভিসন্ধি ও প্রতিহিংসামূলক আচরণ বরদাস্ত করা হবে না।”

এই মিছিলের নেতৃত্বে ছিলেন বিধানসভায় কংগ্রেসের চিফ হুইপ তথা প্রদেশ কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক মনোজ চক্রবর্তী, বিধায়ক অসিত মিত্র, ঋজু ঘোষাল, সুমন পাল, মহেশ শর্মা, প্রীতম ঘোষ, প্রদীপ প্রসাদ, সৌরভ প্রসাদ প্রমুখ। বহু কংগ্রেস সমর্থক পা মেলান এই মিছিলে। তাঁদের অভিযোগ, ইচ্ছে করে সম্পূর্ণ রাজনৈতিক কারণে বাঙালি মেয়ে রিয়া চক্রবর্তীকে ফাঁসানোর চেষ্টা হচ্ছে। এটা তাঁরা কিছুতেই হতে দেবেন না। একদিকে যখন বিহারে সুশান্তের সমর্থনে পোস্টার লাগিয়েছে বিজেপি, তখন বাংলায় রিয়ার সমর্থনে এগিয়ে এল কংগ্রেস।

এর আগে গত বুধবার দ্য ওয়াল-কে অধীর চৌধুরী স্পষ্ট বলেন, বাঙালি ব্রাহ্মণ মেয়ে হলেন রিয়া চক্রবর্তী। প্রাক্তন এক সেনা কর্তার মেয়ে তিনি। যে সেনা কর্তা দেশকে সেবা করেছেন। সুশান্ত সিং রাজপুতকে সুবিচার দেওয়া যেন একজন বিহারিকে বিচার দেওয়ায় পর্যবসিত না হয়। তাঁর কথায়, রিয়া চক্রবর্তীকে সুশান্ত সিংয়ের মৃত্যুতে প্ররোচনা দেওয়ার জন্য কিন্তু গ্রেফতার করা হয়নি। কিংবা কোনও আর্থিক অপরাধে গ্রেফতার করা হয়নি। তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে এনডিপিএস আইনের ধারায়। যা কিনা হাস্যকর। রাজনৈতিক প্রভুদের খুশি করতে গিয়ে তদন্ত এজেন্সিগুলি অমৃতের বদলে এখন ড্রাগ খুঁজে পেয়েছে। এখনও তাঁরা অন্ধকারে হাতড়ে চলেছে খুনি কে?

বিহারে শাসক জোট এরই মধ্যে সুশান্তের ছবি দিয়ে পোস্টার লাগানো শুরু করেছে—‘না ভুলেঙ্গে না ভুলনে দেঙ্গে..।’ এই প্রসঙ্গে অধীরবাবু বলেন, সুশান্ত সিং রাজপুত সর্বভারতীয় অভিনেতা ছিলেন। গোটা দেশের মানুষের ভালবাসা পেয়েছেন তিনি। দেশের বিপুল সংখ্যক মানুষ তাঁর অভিনয় দেখে মুগ্ধ হয়েছেন। কিন্তু বিজেপি তাঁকে বিহারের অভিনেতা করে ছেড়েছে। এটা বড়ই দুর্ভাগ্যের।

দ্য ওয়াল-কে অধীরবাবু আরও বলেন, কেন্দ্রে শাসক দল দৃষ্টি ঘোরাতে মাস্টার। অর্থনৈতিক সংকটে দেশ ধুঁকছে। কোটি কোটি মানুষের কোনও কাজ নেই। জীবন অনিশ্চিত হয়ে পড়ছে। অর্থনৈতিক বৃদ্ধির দর মাইনাসে চলে গিয়েছে। কোভিড রুখতে ও মানুষকে ন্যূনতম সামাজিক সুরক্ষা দিতে কেন্দ্রের সরকার যে ব্যর্থ হয়েছে তা প্রকট হয়ে পড়ছে। তাই আফিমের ব্যবস্থা করা হয়েছে। একটা মৃত্যু তদন্তকে নিয়ে এমন কাণ্ড কারখানা ঘটানো হচ্ছে, যাতে মানুষের দৃষ্টি সেদিকেই থাকে। কিন্তু এই খেলা মানুষ ধরে ফেলেছে। ক্ষুধার কাছে এই হেঁয়ালি গদ্যময়।

প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির কথা থেকেই স্পষ্ট কেন্দ্রের এই আচরণের তীব্র বিরোধিতা করছেন তাঁরা। শুধু মুখে নয়, এবার পথে নেমে শুরু হল বিক্ষোভ। রিয়ার সমর্থনে খাস কলকাতায় মিছিল করল কংগ্রেস।

You might also like