Latest News

অনুব্রতর ব্যাপারে দায়িত্ব নিয়েছিলেন মলয় ঘটক: বিস্ফোরক কল্যাণ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অনুব্রত মণ্ডলের (Anubrata Mondal) মামলা নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় (Kalyan Banerjee)। জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চে এদিন মামলা করতে গিয়েছিলেন কল্যাণ। সেখানে তাঁকে অনুব্রত নিয়ে প্রশ্ন করলে আইনমন্ত্রী মলয় ঘটকের (Moloy Ghatak) দায়িত্বের কথা টেনে আনেন শ্রীরামপুরের সাংসদ।

এদিন কল্যাণ বলেন, “অনুব্রত মণ্ডলের মামলা নিয়ে তো কীসব মামলা-টামলা হবে বলেছিল। সে তো মলয় ঘটক নিজে দায়িত্ব নিয়েছিল। আমি তো জানি না, আমি বলতে পারব না।”

এরপরেই সাংবাদিকরা কল্যাণকে প্রশ্ন করেন, তাহলে কি মলয় ঘটক দায়িত্ব এড়িয়ে গিয়েছেন? জবাবে কল্যাণ বলেন,”আমি জানি না। সেটা মলয় ঘটক বলতে পারবে। ল’মিনিস্টার (আইনমন্ত্রী) নিজে বলতে পারবেন।”

অনুব্রতকে কি সাসপেন্ড করবে পার্টি, কী জানাল তৃণমূল?

কল্যাণ যখন জলপাইগুড়িতে দাঁড়িয়ে একথা বলছেন তার খানিকক্ষণ আগেই কলকাতায় সাংবাদিক বৈঠক করেছিলেন চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য এবং তৃণমূল মুখপাত্র সমীর চক্রবর্তী। সেই প্রসঙ্গ তুলে কল্যাণ বলেন, দল তো যা বলার বলেই দিয়েছে। দুর্নীতির প্রশ্নে জিরো টলারেন্স। কেউ দুর্নীতি করলে তার দায় দল নেবে না।

তবে অনুব্রতর মামলার ব্যাপারে মলয় ঘটক ঠিক কী দায়িত্ব নিয়েছিলেন, কোন মামলা-টামলার কথা বলেছিলেন সে ব্যাপারে কিছু স্পষ্ট করেননি কল্যাণ। অনেকের মতে, মলয়ের নাম তুলে কল্যাণ আসলে তৃণমূলের অভ্যন্তরের জটিলতাকেই এদিন সামনে এনে দিয়েছেন।

কল্যাণ আরও বলেছেন, এ নিয়ে বিরোধীরা যতই হইহই করুক তাতে কোনও লাভ হবে না। কারণ ওদের বাজারে কিছু নেই। কল্যাণ আরও বলেন, তৃণমূলের একটাই ভরসা। তাঁর নাম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন যেন আরও একবার কল্যাণ বোঝাতে চাইলেন, তৃণমূলে দিদি একাই নেত্রী। নম্বর টু বলে কিছুই নেই। সে তিনি যতই পরিণত আচরণ করুক না কেন!

You might also like