Latest News

সারা শরীরে হাঁসুয়ার কোপ, দগদগে ঘা, দু’বার কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়ায় তরুণীকে কুপিয়ে খুনের চেষ্টা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দু’বারই কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন তরুণী। আর তাতেই শ্বশুরবাড়িতে অত্যাচারের (Crime) মাত্রা কয়েকগুণ বেড়ে গিয়েছিল। মারধর চলত রোজই। ধারালো অস্ত্রের কোপ বসিয়ে নির্মম নির্য়াতন করত স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন। বৃহস্পতিবার রাতে তরুণীর বিকট আর্তনাদ শুনে আর স্থির থাকতে পারেননি প্রতিবেশীরা। সকলে ছুটে এসে বাড়ির দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে দেখেন ভয়াবহ দৃশ্য। ঘরের মেঝেয় শুয়ে কাতরাচ্ছেন তরুণী। সারা শরীরে কালশিটের দাগ। ক্ষত থেকে বেরিয়ে আসছে রক্ত।

মালদার ইংরেজপুরে এই ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটেছে গতকাল। বছর বাইশের ওই বধূর নাম অলোকা মণ্ডল। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, তরুণীর পরিবারের লোকজন তাঁর শ্বশুরবাড়ির দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছে। অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরেই নির্যাতনের শিকার হচ্ছিলেন তরুণী। পর পর দুবার কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়ার পরে আরও নির্যাতন আরও বাড়ে। গতকাল তাঁকে হাঁসুয়া দিয়ে কুপিয়ে খুনের চেষ্টা করা হয়। প্রতিবেশীরা ছুটে না এলে খুনই হয়ে যেতেন তরুণী।

স্থানীয়রা বলছেন, বিয়ের পর থেকেই ওই পরিবারে অশান্তি চলত। তরুণীর স্বামী গোপাল মণ্ডল সব্জি বিক্রেতা। প্রায়ই স্ত্রীকে মারধর করতেন। প্রথমবার কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়ার পরে তরুণীকে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়। দ্বিতীয়বারও মেয়ে হওয়ার পরে তরুণীকে খুন করার চেষ্টা করে তাঁর স্বামী ও শাশুড়ি। তরুণীর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁর শ্বশুরবাড়ির লোকজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা সুখপাঠ

You might also like