Latest News

অভিষেকের ফোন ট্যাপ করাচ্ছেন শুভেন্দু? বিরোধী দলনেতাকে হেফাজতে নিয়ে জেরার দাবি কুণালের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ওদিকে পেগাসাস কাণ্ডে উত্তাল দিল্লি। বিরোধীদের প্রবল বিক্ষোভে সংসদের দুই কক্ষের অধিবেশনই মুলতুবি করতে হয়েছে মঙ্গলবার। বাংলায় বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে নতুন ফোন ট্যাপের অভিযোগ তুললেন রাজ্য তৃণমূলের অন্যতম সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ।

কুণাল এখন শুভেন্দুর নাম নেন না। শুধু লেখেন এলওপি। যার আসল পুরো কথা লিডার অফ দ্য অপজিশন। কিন্তু কুণাল ব্র্যাকেটে লেখেন লিমিটলেস অপার্চুনিস্ট। টুইটে কুণাল লিখেছেন, ‘এলওপি প্রকাশ্যে পুলিশকে বলেছে ওঁর কাছে আমাদের নেতার দফতরের ফোনের কল লিস্ট, রেকর্ডিং সব আছে। এটা ফোনে আড়ি পাতার প্রমাণ। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেকের কাছে অনুরোধ, অবিলম্বে তদন্ত শুরু করে ওঁর জেরার মাধ্যমে গোটা চক্রান্ত প্রকাশ্যে আনা হোক।’

কেন এই অভিযোগ?

গতকাল পূর্ব মেদিনীপুরের বিজেপি তমলুকে এসপি অফিস ঘেরাও অভিযান ডেকেছিল। মিথ্যে মামলা দেওয়ার প্রতিবাদে এই কর্মসূচি নিয়েছিল গেরুয়া শিবির। সেখানেই একটি ম্যাটাডোরে দাঁড়িয়ে শুভেন্দু বলেন, “এখানে একটা বাচ্চা ছেলে এসপি এসেছে। আপনাকে বলে রাখি, এখানে চটিমণি, পিসিমণি কেউ বাঁচাতে পারবে না। ভাইপোর অফিস থেকে যারা ফোন করে আপনাকে, প্রত্যেকটা কল রেকর্ড আমার কাছে আছে। আমি অনেক পুরানো খেলোয়াড়।”

শুভেন্দু এও বলেছিলেন, “তোমাদের রাজ্য সরকার থাকলে আমাদের হাতেও কেন্দ্রীয় সরকার রয়েছে।” তারপরই শুভেন্দুর ওই বক্তব্য নিয়ে ময়দানে নেমেছেন কুণাল।

সাম্প্রতিক সময়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বারবার ফোনে আড়ি পাতার অভিযোগ তুলেছেন। বাম জমানাতেও তৃণমূলনেত্রী এই অভিযোগ করতেন। তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য বলতেন, তৃণমূল নেতাদের সঙ্গে মাওবাদীদের কী কথা হয় সব আমরা জানি। বুদ্ধদেববাবুর ওই বক্তব্য নিয়েই তৃণমূল আড়ি পাতার অভিযোগ করত। পরবর্তী সময়ে কেন্দ্রের বিজেপি জমানাতে অসংখ্যবার এই অভিযোগ করেছেন মমতা।

যদিও বাংলায় বিরোধী দলগুলির অনেক নেতাই দাবি করেন, রাজ্য সরকার তাঁদের ফোন ট্যাপ করে। শুধু তাই নয়। শুভেন্দুও একবার বলেছিলেন, নবান্নের অফিসারদেরও ফোন ট্যাপ হয়। তাই তাঁরা ভয়ে ফোনে কথা বলেন না। ফেসটাইম অ্যাপে কথা বলেন।

You might also like