Latest News

আদালতের বিধি কি আদৌ মানা হচ্ছে সাগরে, রাতে জরুরি বৈঠকে বিচারপতি, মন্ত্রীরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো,সাগরদ্বীপ: রাতে আচমকা (meet) বৈঠক গঙ্গাসাগরে (gangasagar)। বুধবার রাত সাড়ে নটা নাগাদ এই বৈঠক হয়। জানা গেছে, আদালতের নির্দেশ (court instructions)মেনে মেলা হচ্ছে কী না, তা খতিয়ে(review) দেখতেই এই বৈঠক।

বৈঠকে ছিলেন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি সমাপ্তি চ্যাটার্জি, যিনি গঙ্গাসাগর মেলায় কোভিড বিধিনিষেধ মেনে চলার নিরীক্ষণের জন্য কলকাতা হাইকোর্ট কমিটির সদস্য। ছিলেন রাজ্যের মহিলা ও শিশু উন্নয়ন এবং সমাজকল্যাণ মন্ত্রী শশী পাঁজা, সুন্দরবন বিষয়ক মন্ত্রী বঙ্কিম চন্দ্র হাজরা এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনার জেলা ম্যাজিস্ট্রেট পি উলাগানাথন।

এদিনের বৈঠকে কী কথা হল, জানতে চাওয়া হলে প্রাক্তন বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায়-সহ অন্যরা কেউ কথা বলতে চাননি।

সমাপ্তি এদিন মেলার বিভিন্ন অংশ ঘুরে দেখেন। এরপর কন্ট্রোল রুমে যান। তিনি চলে যাওয়ার পরও প্রায় রাত দশটা পর্যন্ত বৈঠক হয়।

সূত্রের খবর, ‘রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি লাগামছাড়া হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। সেই পরিস্থিতিতে মেলা চালিয়ে যেতে গেলে কী কী সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত, তা নিয়েই কথা হয়েছে এদিন। সেইসঙ্গে প্রচুর পূণ্যার্থী ইতিমধ্যে এসে পৌঁছেছে মেলায়। করোনা বিধি মেনে জোর প্রস্তুতি শুরু হয়েছে পূণ্য স্নানের। কিন্তু আদৌ কতটা মানা হচ্ছে মেলার করোনা বিধি? সে সব প্রশ্নও উঠেছে।

অভিযোগ, গঙ্গাসাগর উপলক্ষে বাসে করে উত্তরপ্রদেশ, বিহার এবং রাজস্থান থেকে পুণ্যার্থীরা সরাসরি গঙ্গাসাগর মেলায় যেতে শুরুও করে দিয়েছেন। হচ্ছে না কোনও পরীক্ষা। হাইকোর্টের নির্দেশকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে আরটিপিসিআর রিপোর্ট ছাড়াই মেলায় চলে আসছে তারা।

পুলিশসূত্রে খবর, বুধবার পর্যন্ত প্রায় ছশো পূণ্যার্থী কোনও করোনা পরীক্ষা ছাড়াই হাওড়া থেকে বাসে সরাসরি গঙ্গাসাগর এসেছেন। ফলে ব্যাপক সংক্রমণের আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। এদিনের বৈঠক সেই কারণেই বলেও জল্পনা।

 

You might also like