Latest News

সামনেই বিয়ে, সানাই বাজিয়ে পঞ্চায়েত অফিসেই চলছে উপপ্রধানের ‘আইবুড়ো ভাত’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বিয়ে আর কিছুদিন পরেই। সেই আনন্দে পঞ্চায়েত অফিসেই উপপ্রধানের আইবুড়ো ভাতের আয়োজন করা হল ধূমধাম করে। পঞ্চায়েতের চেয়ারে (Jamalpur Panchayat) বসেই হাসিমুখে আইবুড়ো ভাত খেলেন উপপ্রধান সাহাবুদ্দিন মণ্ডল। আর আয়োজনও সামান্য় নয়। সানাইয়ের সুর বাজিয়ে, শঙ্খ-উলুধ্বনি দিয়ে ঘটা করে আইবুড়ো ভাতের আয়োজন করলেন পঞ্চায়েতের সদস্যরাই। খাওয়াদাওয়াও এলাহি ব্যাপার। পঞ্চব্য়াঞ্জনে থালা সাজিয়ে পঞ্চায়েতের মহিলা সদস্যেরা যত্ন করে খাইয়ে দিলেন উপপ্রধানকে। আর এই আনন্দ-উৎসবকে ঘিরে বেশ কয়েক ঘণ্টার জন্য কাজকর্ম লাটে উঠল পঞ্চায়েতের অফিসে।

Image - সামনেই বিয়ে, সানাই বাজিয়ে পঞ্চায়েত অফিসেই চলছে উপপ্রধানের 'আইবুড়ো ভাত'

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায় পূর্ব বর্ধমান জেলা সফরে আসার আগে শুক্রবার এমন ঘটনা ঘটেছে জামালপুর ১ গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে। আইবুড়ো ভাতের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে, যদিও তার সত্যতা যাচাই করা যায়নি। সেই ভিডিওতে দেখা গেছে, থালা সাজিয়ে পঞ্চায়েত অফিসেই উপপ্রধানকে আইবুড়ো ভাত খাওয়াচ্ছেন পঞ্চায়েতের সদস্যরা। রান্নাবান্নার আয়োজনও এলাহি। বড় কাঁসার থালার চারপাশে থরে থরে বাটি সাজানো। ভাত , মাংস ,ডাল , নানা রকম তরকারি ছাড়াও মেনুতে ছিল বড় মাছের মাথার মুড়ো ,পায়েস দই, মিষ্টি ও চাটনি। অনুষ্ঠানের আয়োজক আবার খোদ পঞ্চায়েত প্রধান।

এই খবর জানাজানি হওয়াতে বেজায় চটেছে তৃণমূল নেতৃত্ব। শোনা যাচ্ছে, বিরোধী শিবিরও এই নিয়ে কানাঘুষো করছে। কাজকর্ম মাথায় তুলে পঞ্চায়েত অফিসে এমন ঘটনা ঘটায় ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন বিরোধীদের একাংশ। অভিযোগ, যখন আনন্দ-অনুষ্ঠান চলছিল তখন নাকি এলাকার অনেক বাসিন্দাই কাজ নিয়ে এসে ফিরে চলে যান।  যদিও পঞ্চায়েতের প্রধান ডলি নন্দীর দাবি, অফিসের সময় নষ্ট করে কিছু করা হয়নি। কাজ নিয়ে এসে কেউ ফেরতও যাননি। সবটাই রটনা করা হচ্ছে।

জামালপুর ১ গ্রাম পঞ্চায়েতে মোট সদস্য সংখ্যা ১৪ জন। বেশিরভাগই মহিলা সদস্য। কাগজে কলমে ডলি নন্দী প্রধান হলেও পঞ্চায়েতের দণ্ডমুণ্ডের মূল কর্তা হলেন উপপ্রধান সাহাবুদ্দিন মণ্ডল। অন্য সদস্যদের থেকে বয়সেও তিনি অনেক ছোট। পঞ্চায়েত অফিস সংলগ্ন সেলিমাবাদ গ্রামে বাড়ি সাহাবুদ্দিনের। আগামী ৫ জুলাই এই উপপ্রধানেরই বিয়ে। আর তাঁকে নিয়েই এত হইহই পঞ্চায়েত অফিসে।

করোনা দিন দিন বাড়ছে, কলকাতা মেডিক্যালের চার পড়ুয়া ভর্তি বেলেঘাটা আইডিতে

যদিও উপপ্রধানের বক্তব্য, বাড়ি থেকে সকলে রান্না করে এনে ছোটখাটো আয়োজন করা হয়েছিল. কাজকর্ম শিকেয় তুলে কিছু করা হয়নি। অযথা এই বিষয়টা নিয়ে জলঘোলা করা হচ্ছে।

বিডিও শুভঙ্কর মজুমদার বলেন ,“ঘটনা বিষয়ে আমার কিছুই জানা নেই । তবে এমনটা হয়ে থাকলে বাজে কাজই হয়েছে। কেন এমনটা হল সেই বিষয়ে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে।”

You might also like