Latest News

পরীক্ষায় পাশ করানোর দাবিতে তুমুল বিক্ষোভ, হুগলির স্কুলে গেট আটকে তুলকালাম পড়ুয়া-অভিভাবকদের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পাশ করাতেই হবে। দাবি এমনটাই। স্কুলের গেট আটকে তুমুল বিক্ষোভ অভিভাবক ও ছাত্রীদের। বুধবার এই ঘটনা ঘটেছে হুগলির (Hooghly) শ্রীরামপুর উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে। প্রায় ঘণ্টা তিনেক ধরে বিক্ষোভ চলে। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে আসে শ্রীরামপুর থানার পুলিশ।

মাধ্যমিকের ২৩ জন এবং উচ্চ মাধ্যমিকের ৯ জন টেস্ট পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়নি বলে অভিযোগ ছাত্রীদের। এরপরেই পাশ করানোর দাবিতে স্কুলের গেটের সামনে বিক্ষোভ শুরু হয়। বিক্ষোভের জেরে প্রধান শিক্ষিকা সহ বেশ কয়েকজন শিক্ষিকা স্কুলের মধ্যে আটকে পড়েন। প্রায় তিন ঘন্টা ধরে বিক্ষোভ চলে। পরে শ্রীরামপুর থানার পুলিশ এসে শিক্ষিকাদের বের করে নিয়ে যায়।

গুজরাত, হিমাচলের ভোটের ফল আজ, যত কৌতুহল মোদী, কেজরিওয়ালের কেরামতি, কংগ্রেসের ভবিষ্যৎ ঘিরে

দ্বাদশ শ্রেণির এক ছাত্রীর দাবি, “প্রি-টেস্ট পরীক্ষায় ভাল রেজাল্ট করলেও টেস্ট পরীক্ষায় কীভাবে খারাপ নম্বর হল? আমাদের উত্তীর্ণ করিয়ে দেওয়া হোক। আমরা উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় ভাল রেজাল্ট করব। সব স্কুলে পাস করানো হলেও আমাদের টেস্ট পরীক্ষায় পাস করানো হয়নি। আমরা খাতা দেখতে চাইলে তাও দেখানো হচ্ছে না।”
অন্যদিকে, এক মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী দাবি করেছেন, “সব স্কুলে পাশ করানো হলেও আমাদের স্কুলে পাস করানো হয়নি। আমাদের দাবি আমাদের পাশ করাতে হবে। মাধ্যমিক পরীক্ষায় আমরা ভাল রেজাল্ট করব।”

অভিভাবিকা অঞ্জু সাউ বলেন, টেস্ট পরীক্ষা স্কুলের হাতে, বোর্ডের হাতে থাকে না। স্কুল কর্তৃপক্ষ যদি ছাত্রীদের উত্তীর্ণ করে তাহলে ভাল হয়। তা না হলে একটা বছর নষ্ট হবে তাদের।

স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা আইভি সরকার জানান, দশম শ্রেণির টেস্ট পরীক্ষায় বেশ কয়েকজন ছাত্রী খুব খারাপ রেজাল্ট করেছে। যারা ফেল করেছে তারা বছরের বিভিন্ন পরীক্ষাতে কখনও সাত কখনও তিন নম্বর পেয়েছে । মাধ্যমিকের ২৩ জন ও উচ্চ মাধ্যমিকের ৯ জন ছাত্রী অকৃতকার্য হয়েছে। আমরা ছাত্রীদের খাতাও দেখাতে চাই। সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে বারবার মিটিং করা হয়েছে। ছাত্রীদের জানানো হয়েছে তারা যেন লিখিত আকারে একটি দরখাস্ত করে। তারপর তাদের খাতা দেখানো হবে।

You might also like