Latest News

বাঁকুড়ায় শিশু পাচারে নাম জড়ালো খোদ সরকারি স্কুলের প্রধান শিক্ষকের, গ্রেফতার আরও আট

দ্য ওয়াল ব্যুরো: শিশু পাচারের অভিযোগ উঠল খোদ সরকারি স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। সেই সঙ্গে গোটা ঘটনায় নাম জড়ালো একই স্কুলের আরও ১ শিক্ষক-সহ মোট ৮ জনের। বাঁকুড়ার এই ঘটনায় তাজ্জব প্রশাসনও।

জওহর নবোদয় বিদ্যালয়ের ঘটনা। ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কমলকুমার রাজোরিয়াকে সোমবারই গ্রেফতার করেছে পুলিশ। একইসঙ্গে আরও ৮ জন অভিযুক্তকেও গ্রেফতার করা হয়েছে বলে খবর। অভিযোগ ওই প্রধান শিক্ষকের বাড়ি থেকে মোট পাঁচ শিশুকেও উদ্ধার করা হয়েছে। ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়।

সূত্রের খবর, শিশু পাচার কাণ্ডে অভিযুক্ত ওই প্রধান শিক্ষক ও বাকিদের পুলিশি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কমলকুমার রাজোরিয়া এবং আরও তিন জনের ৭ দিন ও বাকিদের ২ আগস্ট পর্যন্ত পুলিশি হেফাজতে থাকতে হবে।

সূত্রের খবর, গতকাল বাঁকুড়ার কালপাথর এলাকায় দুটি শিশুকে জোর করে একটি মারুতি ভ্যানে তোলার চেষ্টা চালাচ্ছিলেন কমলকুমার রাজোরিয়া। বিষয়টি নজরে আসে স্থানীয়দের। এরপরই এলাকার মানুষ ওই গাড়িটিকে ঘিরে রাখেন। ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান অধ্যক্ষ। মারুতি ভ্যান থেকে উদ্ধার হয় চার শিশু ও দুই মহিলা।

জানা গেছে, দুর্গাপুরের মেনগেট ও কাদারোড এলাকা থেকে শিশুদের কিনে এনে রাজস্থানসহ বিভিন্ন জায়গায় পাচার করার পরিকল্পনা ছিল অধ্যক্ষর। এজন্য শিশুদের মাকে দেওয়া হয়েছিল লক্ষাধিক টাকাও। পুলিশ সূত্রে খবর, সপ্তাহ খানেক আগেই ন’মাসের একটি শিশুকে কাদারোড এলাকা থেকে এনেছিলেন অধ্যক্ষ। তারপর জহর নবোদয় স্কুলেরই সুষমা শর্মা নামের এক নিঃসন্তান শিক্ষিকার কাছে শিশুটিকে বিক্রি করে দেন। অন্য দুটি শিশুকেও একই ভাবে বিক্রির উদ্দেশ্যে স্কুল চত্বরে অধ্যক্ষর কোয়ার্টারে এনে রাখা হয় বলে অভিযোগ।

শিশু পাচারের মত ঘটনায় স্কুলের প্রধান শিক্ষকের নাম উঠে আসতেই ঘৃণায় সরব হলেন এলাকার মানুষ। কমল কুমার রাজোরিয়ার কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।

You might also like