Latest News

জামালপুরে সরকারি ভুলে কন্যাশ্রীর টাকা জুটল না ছাত্রীর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কন্যাশ্রী ভাতার জন্য আবেদন করেও টাকা পায়নি কৃতি ছাত্রী। তার আবেদন নাকি বাতিল হয়ে গিয়েছে। কারণটাও চমকপ্রদ! অবিবাহিত হওয়া সত্বেও তাকে বিবাহিত বলে মনগড়া রিপোর্ট দিয়ে দিয়েছেন বুথ লেবেল অফিসার। জানা যায়, সরকারি দফতরে জমা পড়া সেই ভুয়ো রিপোর্টের জেরেই কন্যাশ্রী ভাতা থেকে বঞ্চিত হয়েছে পূর্ব বর্ধমানের জামালপুরের ছাত্রী মণিমালা মণ্ডল।

সরকারি কাজে আধিকারিকের গাফিলতির এমন নজিরবিহীন ঘটনায় শোরগোল পড়েছে পূর্ব বর্ধমানের জামালপুরে। বিহিত চেয়ে ছাত্রী মণিমালা মণ্ডল নিজেই বিডিওর কাছে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছে। সেই অভিযোগ পাওয়ার পরই নড়ে চড়ে বসেছেন ব্লক প্রশাসনের কর্তারা। শুরু হয়েছে ভুল শুধরোনোর পালা।

মণিমালার বাড়ি জামালপুর ১ গ্রাম পঞ্চায়েতের উত্তর মোহনপুর গ্রামে। অভাবী পরিবারের মেয়ে হয়েও ছোট থেকেই পড়াশোনায় আগ্রহ মনিমালার। লেখাপড়ার ব্যাপারে সে বরাবরই সচেতন। জামালপুর উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় থেকে ২০২১ সালে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করার পর মণিমালা এখন জামালপুর মহাবিদ্যালয়ে বি.এ প্রথম বর্ষে ভর্তি হয়েছে। ২০২০ সালে নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে কন্যাশ্রী ভাতার আবেদন করেছিল মনিমালা, কিন্তু সহপাঠীরা সকলে ভাতা পেয়ে গেলেও বঞ্চিত থাকে মণিমালা।

কিন্তু কারণটা কী? সেটা জানতেই দিন কয়েকদিন আগে মণিমালা বিডিও অফিসে যায়। তারপর ব্লকের কন্যাশ্রী আধিকারিকের মুখ থেকে সব ঘটনা শোনার পর তার মাথায় হাত পড়ে।

২৭ ডিসেম্বর ব্লকের কন্যাশ্রী বিভাগের আধিকারিকের কাছেও যায় মণিমালা, ওইদিন আধিকারিক তাকে স্পষ্ট জানিয়ে দেন, বিয়ে হয়ে গেছে বলে রিপোর্ট জমা পড়েছে মণিমালার নামে, তাই সে আর কন্যাশ্রী ভাতা পাবে না।

ঘটনা জানাজানি হতেই নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন। মনিমালা যাতে কন্যাশ্রী ভাতা পেতে পারে সেই বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে আশ্বাস দেন বিডিও।

You might also like