Latest News

সমস্ত দেবদেবীর গয়না অক্ষত, কোচবিহারে ছুরি দেখিয়ে গণেশের পৈতে চুরি করে পালাল দুষ্কৃতীরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: নবমী নিশিতে দুঃসাহসিক চুরি! নিরাপত্তারক্ষীদের ছুরি দেখিয়ে স্বয়ং গণেশ (lord ganesha) ঠাকুরের পরণের পৈতে (janeu) খুলে নিয়ে গেল দুষ্কৃতীরা (robbers)। তবে পৈতে চুরি হলেও বাকি সমস্ত দেবদেবীর গায়ের গয়না অক্ষত রয়েছে।

আশ্চর্য ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহারের (Coochbehar) তেঁতুলতলার কাছে উদয়ন সংঘের দুর্গাপুজোয়। সূত্রের খবর, নবমীর রাতে ৩টে নাগাদ মোটর বাইকে চেপে পুজোমণ্ডপে আসে বেশ কয়েক জন দুষ্কৃতী। সেই সময় ঘটনাস্থলে নিরাপত্তারক্ষীরা ছাড়া দর্শনার্থীরা খুব বেশি কেউ ছিলেন না। আগত দুষ্কৃতীরা দুজন নিরাপত্তারক্ষীকে ধাক্কা মেরে মাটিতে ফেলে দেয়। তারপর তাদের ধারালো ছুরি দেখিয়ে ভয় দেখিয়ে গণেশের গা থেকে পৈতে খুলে নিয়ে চম্পট দেয়। আর অন্য কোন দেবতার কোন গয়না বা অন্য কোনও দামি জিনিস কিংবা টাকা পয়সাও তারা চুরি করেনি বলে জানিয়েছেন পুজো কমিটির সদস্যরা। এমনকি গণেশের যে পৈতেটি তারা চুরি করে নিয়ে গেছে, সেটিও সোনা কিংবা কোনও মূল্যবান জিনিস দিয়ে তৈরি নয় বলেই জানিয়েছেন উদ্যোক্তারা।

ঘটনা জানাজানি হতেই হুলস্থূল পড়ে যায় এলাকায়। এমন আজব চুরির ঘটনায় হতবাক স্থানীয় বাসিন্দারা। কেনই বা হঠাৎ এভাবে এসে গণেশের পৈতে খুলে নিয়ে পালাল দুষ্কৃতীরা, তা কেউই বুঝে উঠতে পারছেন না। অনেকের অবশ্য মত, এই চুরির সঙ্গে কোনও সংস্কার জড়িত আছে। যেমন, অনেকেই মনে করেন, সিদ্ধিদাতা গণেশের পৈতে নিজের শরীরে ধারণ করলে তা সংসারের মঙ্গল করে, ব্যবসা-বাণিজ্যে সুফল মেলে। সেই কারণেই এমন আশ্চর্য চুরির ঘটনা ঘটেছে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।

ইতিমধ্যে পুরো ঘটনা পুলিশকে জানানো হয়েছে।দুষ্কৃতীদের সন্ধানে তল্লাশি চালাচ্ছে কোতোয়ালি থানার পুলিশ।

প্রসঙ্গত নবমীর রাতেই হুগলি শেওড়াফুলিতে ৪ নম্বর রেলগেট এর কাছে দিশারী মহিলা আবাসনের পূজামণ্ডপে দুঃসাহসিক চুরির ঘটনা ঘটেছে। মণ্ডপের সামনে লাগানো সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, জুতো খুলে মন্ডপের ঢুকে প্রতিমাকে ভক্তিভরে প্রণাম করে পূজার বাসন, শাড়ি গামছা সহ যাবতীয় সামগ্রী চুরি করে নিয়ে ব্যাগ হাতে চম্পট দেয় এক দুষ্কৃতী। দুধে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে শেওড়াফুলি থানার পুলিশ।

শেওড়াফুলির মণ্ডপে ভক্তিভরে চুরি করল চোর, অতিভক্তি ধরা রইল সিসিটিভিতে

You might also like