Latest News

ক্যানিংয়ে ফুটপাথে পড়ে অচেতন মহিলা, ত্রাতার ভূমিকায় অটোচালকরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো : অচেতন অবস্থায় দীর্ঘক্ষণ ফুটপাথে পড়েছিলেন এক মহিলা। পথচারীরা যাতায়াতের পথে উঁকি মেরে যে যার গন্তব্যে চলে যাচ্ছিলেন। এমতাবস্থায় স্থানীয় অটোচালকরা এলেন ত্রাতা হয়ে। সেই অচৈতন্য মহিলাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য নিয়ে গেলেন ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে। সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় চিকিৎসা। সঠিক সময়ে চিকিৎসা শুরু হওয়ায় সুস্থ হওয়ার পথে ওই মহিলা। অটোচালকদের এই মানবিক ভূমিকাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সকলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মহিলার নাম প্রতিমা সরকার। তিনি ক্যানিং থানার ইটখোলা গ্রামপঞ্চায়েতের উত্তর রেদোখালি গ্রামের বাসিন্দা। বছর পাঁচেক আগে স্বামী সুদর্শন সরকারের মৃত্যুর পর সংসারের হাল ধরেন প্রতিমা। এখন তিনি প্রতিদিন প্রায় ১৫ কিলোমিটার সাইকেল চালিয়ে ক্যানিং আসেন। সেখান থেকে ট্রেন ধরে দক্ষিণ কলকাতা শহরতলির ঢাকুরিয়ায় কাজ করতে যান। বুধবারও কাজ থেকে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি।

ফেরার পথে ক্যানিং-বারুইপুর অটো স্ট্যান্ডে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। সাইকেল থেকে নেমে রাস্তার ফুটপাথে পড়ে গিয়ে আচমকা অচৈতন্য হয়ে যান। প্রায় আধঘণ্টা সেভাবেই ফুটপাথে পড়ে থাকেন প্রতিমা। পথচারীদের অনেকেই উঁকি দিয়ে দেখলেও কেউই সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসেননি। সেই সময় এগিয়ে আসেন স্থানীয় অটোচালক দুলালচন্দ্র সাউ এবং অন্যান্য অটোচালকরা। তাঁরাই অসুস্থ প্রতিমাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যান। আপাতত সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি।

উদ্ধারকারী অটোচালক দুলালচন্দ্র সাউ জানিয়েছেন, কেউ বিপদে পড়লে মানুষ হিসেবে পাশে দাঁড়ানোই উচিত কর্তব্য বলে মনে করেন তিনি। অন্যদিকে, হাসপাতালে জ্ঞান ফেরার পর প্রতিমার কথায় কৃতজ্ঞতা ঝরে পড়েছে। তিনি জানান, সাইকেল চালিয়ে বাড়ি ফেরার সময় বুকে প্রচণ্ড ব্যথা অনুভব করেন। এরপর ক্যানিং অটো স্ট্যান্ডের কাছে পৌঁছে সাইকেল থেকে পড়ে যান। তারপর আর কিছু মনে নেই। অটোচালক দাদারা তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে এসে নতুন জীবন দিয়েছেন। তাঁদের কাছে কৃতজ্ঞতার শেষ নেই।

You might also like