Latest News

বুদ্ধদেববাবুর শরীরে অক্সিজেন কমেছে, হাসপাতালে ভর্তি করতেই হবে, অ্যাম্বুলেন্স যাচ্ছে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কোভিডে আক্রান্ত প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের আচমকাই অক্সিজেন স্যাচুরেশন কমে গেল মঙ্গলবার সকালে। তারপরই তাঁকে হাসপাতালে ভর্তির তোড়জোড় শুরু হয়েছে। সকাল সওয়া এগারোটায় অ্যাম্বুলেন্স পৌঁছে গেছে তাঁর বাড়ির কাছে। তাঁকে নিয়ে যাওয়া হবে উডল্যান্ডস হাসপাতালে।

জানা গিয়েছে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর অক্সিজেনের মাত্রা কমার পাশাপাশি সাইটোকাইনের মাত্রাও কমবেশি হচ্ছে। ডাক্তারবাবুদের মতে, কোভিডের দ্বিতীয় সপ্তাহে এটা অনেকেরই হয়। বিশেষত যাঁদের সিওপিডি সমস্যা থাকে তাঁদের এক্ষেত্রে এই ব্যাপারটি ঝুঁকিপূর্ণ। তাই আর বাড়িতে না রেখে বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে হাসপাতালে ভর্তি করা হচ্ছে।

তা ছাড়া ইয়াসের কারণে কী বিপর্যয় হবে কারও জানা নেই। তাই কিছুটা আগাম সতর্কতা হিসেবেই বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে হাসপাতালে ভর্তি করার কথা সিদ্ধান্ত নেয় সিপিএম নেতৃত্ব। সোমবার রাতে এ নিয়ে বুদ্ধবাবুর কাছে বার্তা পাঠান রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র। তারপর তাঁকে রাজি করানো গিয়েছে।

এতদিন বাড়িতেই তাঁর চিকিৎসা চলছিল। অক্সিজেন স্যাচুরেশনও স্বাভাবিকই ছিল কম-বেশি। স্বাভাবিক খাওয়াদাওয়াও করতে পারছিলেন বলে জানা গিয়েছে। চিকিৎসকরা অবশ্য আগেই চেয়েছিলেন তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করতে। কিন্ত প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বরাবরের মতো এবারও হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার ব্যাপারে অনীহা দেখিয়েছিলেন।

দু’দিন আগেই সিপিএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র জানিয়েছিলেন, বুদ্ধবাবুর শরীরে মেডিক্যাল প্যারামিটারগুলি এখনও স্বাভাবিক রয়েছে। এখনই তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হবে না। তবে এদিক ওদিক হলে হাসপাতালে ভর্তি করতেই হবে। সারা বছরই বর্ষীয়ান সিপিএম নেতার অক্সিজেন স্যাচুরেশন নব্বইয়ের আশপাশে থাকে। সিওপিডি-র সমস্যার কারণে গত কয়েক বছর ধরে সারাক্ষণ তাঁকে পোর্টেবল অক্সিজেন সিলিন্ডারের সাপোর্টে থাকতে হয়। তবে বুদ্ধবাবুর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে। কোভিডজনিত নতুন কোনও সমস্যা তাঁর নেই বলেই জানিয়েছিলেন চিকিৎসকরা।

অবশেষে পরিস্থিতি আরও কঠিন হল আজ মঙ্গলবার সকালে। অনিচ্ছা সত্ত্বেও হাসপাতালে ভর্তি করতে হল বুদ্ধবাবুকে।

You might also like