Latest News

তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে বাঁকুড়ার গ্রামে বোমাবাজি-ভাঙচুর, আহত ৭

দ্য ওয়াল ব্যুরো, বাঁকুড়া: রাজনৈতিক অশান্তিতে উত্তপ্ত বাঁকুড়া বিষ্ণুপুর থানার বেলিয়াড়া গ্রাম। শনিবার রাতভর এলাকায় চলেছে বোমাবাজি, বাড়ি ভাঙচুর। এই ঘটনায় আহত হয়েছে ৭ জন। এলাকায় পুলিশ বাহিনী ঢুকে তল্লাশি অভিযান শুরু করলে উদ্ধার হয় একাধিক তাজা বোমা। ইতিমধ্যে ৭জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

জানাগিয়েছে শাসকদলের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে জেরেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে গোটা গ্রাম। উভয় পক্ষই একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছে। ঘটনার খবর পেয়ে বিশাল পুলিশবাহিনী পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

প্রসঙ্গত গত ১ আগস্ট রাতে বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুর থানার বেলিয়াড়া গ্রামে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দের জেরে খুন হন তৃণমূলের প্রাক্তন প্রধান শেখ বাবর আলি। স্থানীয় উলিয়াড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূলের প্রধান ছিলেন তিনি।

অভিযোগ উঠে, খুনে দায়ে চাপে উলিয়াড়া গ্রাম পঞ্চায়েত বর্তমান তৃণমূল প্রধান তসমিরা খাতুনের স্বামী রহিম মন্ডল ও তার গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে। প্রায় ১ বছর আগে ঘটে যাওয়া এই ঘটনায় জেরে শনিবার রাতে ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠে বেলিয়াড়া গ্রাম।

মুড়ি-মুড়কির মতো বোমাবাজি হয় গ্রামে। একাধিক বাড়ি লক্ষ্য করে বোমাবাজি করা হয় বলে অভিযোগ। একাধিক বাড়ি ভাঙচুর করা হয়। অভিযোগ, ওই খুনের ঘটনায় যাঁরা সাক্ষী রয়েছেন সেই সাক্ষীদের বাড়িতে এবং তাঁদের খুন করতে এই হামলা চালায় উলিয়াড়া গ্রাম পঞ্চায়েত  তৃণমূল প্রধানের গোষ্ঠীর লোকজনেরা। এই গোষ্ঠীর রহিম মন্ডল, সামসুর পাহলোয়ান ও সেলিম পাহলোয়ানের নেতৃত্বে এই হামলা চালানো হয়েছে তৃণমূল কর্মীদের বাড়িতে বাড়িতে অভিযোগ এমনই। অভিযোগ অভিযুক্তরা গ্রামে এইভাবেই সন্ত্রাসের রাজনীতি করছে। অভিযুক্তরা একসসময় সিপিএম করত পরে তৃণমূল করে বর্তমানে বিজেপি করছে বলেই দাবি আক্রান্তকারী গ্রামের তৃণমূল কর্মীদের।

যাদের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ, তারা এই হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছে। অভিযুক্তদের পালটা দাবি, তাদের একাধিক বাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে এবং মারধর করা হয়েছে ৭ জনকে।

অভিযুক্তদের দাবি, তারা কখনও বিজেপির সঙ্গে যুক্ত নন। তারা তৃণমূলের কর্মী। এলাকায় যাতে তারা ঢুকতে না পারেন তাই গ্রামে অপর গোষ্ঠী তাদের ওপর হামলা চালিয়ে এলাকায় পরিবেশ নষ্ট করছে।

ঘটনা একটা ঘটেছে তবে পুরো বিষয়টি খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে বলেই জানিয়েছেন তৃণমূল সভাপতি। এদিকে এই ঘটনার জেরে পুলিশ গ্রেফতার করেছে ৭ জনকে। একাধিক তাজা বোমা উদ্ধার হয়েছে। এলাকায় মোতায়েন রয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী।

You might also like