Latest News

বাংলায় জেলা বাড়ল বিজেপির, ৩০ সভাপতিকে বদলে দিল গেরুয়া শিবির

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ছিল ৩৯। হল ৪২।

বাংলায় সংগঠনকে পোক্ত করতে সাংগঠনিক জেলার সংখ্যা বাড়াল ভারতীয় জনতা পার্টি। রাজ্য কমিটিতে ব্যাপক বদলের পর এবার জেলা সভাপতি বদলেও কার্যত সাফাই অভিযান চালানো হয়েছে। একসঙ্গে ৩০টি সাংগঠনিক জেলার সভাপতিকে সরিয়ে নতুন মুখ আনা হয়েছে সেখানে।

এখন নতুন আরও তিনটি জেলা যোগ হওয়ায় তা বেড়ে দাঁড়াল ৪২টিতে। নতুন তিন সাংগঠনিক জেলা – বোলপুর, মালদহ দক্ষিণ এবং জয়নগর। এছাড়া পুরনো সাংগঠনিক জেলার বিন্যাসেও বদল আনা হয়েছে। বীরভূমের বোলপুর সাংগঠনিক জেলার অন্তর্ভূক্ত হল পূর্ব বর্ধমানের আউসগ্রাম, মঙ্গলকোট ও কেতুগ্রাম।কারণ বোলপুর লোকসভার মধ্যে পড়ে এই তিন বিধানসভা।

দিলীপ ঘোষ জমানায় যে সমস্ত জেলা সভাপতিকে করিৎকর্মা বলে মনে করত রাজ্য বিজেপি দেখা গেল এবার তাঁদেরও সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। যেমন ব্যারাকপুর সাংগঠনিক জেলার সভাপতি ফাল্গুনী পাত্র ছিলেন মুরলীধর সেন লেনের অন্যতম ভরসার নেত্রী। তাঁকে সরিয়ে দিয়ে ওই জেলার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সন্দীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

কলকাতার দুটি সাংগঠনিক জেলার সভাপতিই বদল করেছে বিজেপি। দক্ষিণে সভাপতি করা হয়েছে সঙ্ঘমিত্রা চৌধুরীকে। তিনি রাজ্য কমিটি থেকে বাদ পড়েছিলেন। আর উত্তর কলকাতার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে কল্যাণ চৌবেকে। প্রসঙ্গত যে ৪২ জন জেলা সভাপতির নামের তালিকা বাংলা বিজেপি এদিন ঘোষণা করেছে তাতে দেখা যাচ্ছে একমাত্র মহিলা সঙ্ঘমিত্রাই।

অনেকের মতে, রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ করা নেতাদেরই বিশেষ ভাবে জেলাগুলির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। পর্যবেক্ষকদের মতে, শুধুমাত্র রাজ্য কমিটি স্তরে বিজেপির বদল অভিযান আটকে থাকল না। তা ছড়িয়ে পড়ল জেলা সংগঠনের ক্ষেত্রেও। সামগ্রিক ভাবে এই ঝাঁকুনি এবং নতুন মুখ নিয়ে আসায় সংগঠনকে নতুন ভাবে ভাবে ঢেলে সাজা যাবে বলেই আশা গেরুয়া শিবিরের নেতাদের। তবে কতটা কী হল তাঁর একটা প্রাথমিক ফল পাওয়া যাবে পুরভোটেই।

You might also like