Latest News

বালুরঘাটে বঁটি নিয়ে পড়শি ডাক্তারকে মারতে গেলেন সংস্কৃত শিক্ষিকা! ব্যাপারটা কী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বঁটি নিয়ে তেড়ে গেলেন সংস্কৃতের শিক্ষিকা, পড়শি ডাক্তারকে মারতে! বালুরঘাট শহরের আদর্শ হাইস্কুল পাড়ায় সেই ঘটনার জেরে ব্যাপক শোরগোল পড়েছে। ডাক্তারকে পাহারা দিতে দিনরাত দুজন সিভিক ভলেন্টিয়ার মোতায়েন করা হয়েছে।

কিন্তু ব্যাপারটা কী? কেন এমন উত্তেজিত হয়ে পড়লেন হাইস্কুলের শিক্ষিকা মঞ্জিষ্ঠা চক্রবর্তী? শোনা যায়, তাঁর বাড়ির পাশে জমি দখল করে নেওয়ার চেষ্টা চলছে। তাঁকে দীর্ঘদিন ধরে উত্যক্ত করছেন দন্ত চিকিৎসক সৌরভ কুণ্ডু ও তাঁর পরিচিত একাধিক ব্যক্তি, এমনটাই অভিযোগ মঞ্জিষ্ঠার।

তারপর ডাক্তার সৌরভ কুণ্ডু সহ এলাকার একাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে বালুরঘাট থানার দ্বারস্থ হলেও পুলিশ অভিযোগ নেয়নি বলেই দাবি শিক্ষিকার।

তপন ব্লকের ভায়োর জালালিয়া হাইস্কুলের সংস্কৃতের শিক্ষিকা মঞ্জিষ্ঠাদেবী। বাড়িতে অসুস্থ বৃদ্ধা মা ও ষষ্ঠ শ্রেণির পড়ুয়া ছেলেকে নিয়ে থাকেন। স্বামী থাকেন আলাদা। অভিযোগ, তাঁর অসহায়তার সুযোগ নিয়েই অভিযুক্ত সেই চিকিৎসক ও কয়েকজন প্রতিবেশি নানা অছিলায় তাঁকে হেনস্থা করে চলেছেন। রাস্তায় বের হলেও অপরিচিত ছেলেদের দিয়ে তাঁকে উত্যক্ত করা হয় বলে অভিযোগ।

এরপর গত ১১ জানুয়ারি প্রতিবেশী বিশ্বজিৎ বসাকের বাড়িতে পিকনিক হচ্ছিল। সেদিন ওই বাড়ি থেকে মঞ্জিষ্ঠার উদ্দেশ্যে কটু মন্তব্য করা হয় বলে অভিযোগ। এতেই নাকি ধৈর্যের বাঁধ ভাঙে শিক্ষিকার। বহুদিনের জমা ক্রোধের বশেই শিক্ষিকা বঁটি হাতে সৌরভ কুণ্ডুর দিকে ধেয়ে আসেন বলে জানা যায়।

এরপরই বালুরঘাট থানায় শিক্ষিকার বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার অভিযোগ দায়ের করেন দন্ত চিকিৎসক সৌরভ কুণ্ডু। ওই শিক্ষিকাকে উত্যক্ত করা কিংবা তাঁর বিরুদ্ধে অন্যান্য অভিযোগ ভিত্তিহীন বলেই দাবি করেন সৌরভ।

যদিও এমন আকস্মিক ঘটনার পর থেকে এলাকাবাসীর মধ্যে রয়েছে চাপা উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। শীতের পোশাক পরেছিলেন বলেই নাকি বঁটির কোপ থেকে রক্ষা পেয়েছেন, এমনটাই দাবি সৌরভের।

You might also like