Latest News

করোনা আশঙ্কায় সোমবার থেকে সমস্ত স্কুল-কলেজ বন্ধ, সিদ্ধান্ত নবান্নের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: করোনা আশঙ্কার মধ্যেই এবার রাজ্যে সব সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার। সোমবার থেকে বন্ধ থাকবে রাজ্যের সমস্ত সরকারি ও বেসরকারি স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, মাদ্রাসা এবং অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। আপাতত ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার।

শনিবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তরফে একটি প্রেস বিবৃতি জারি করা হয়। এই বিবৃতিতে বলা হয়েছে বিশ্বজুড়ে মহামারীর আকার নিয়েছে করোনা ভাইরাস। এই অবস্থায় সব দেশকে অ্যাডভাইজরি পাঠিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা হু। ভারতেও সব রাজ্যকে অ্যাডভাইজরি পাঠিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক। সেই অ্যাডভাইজরি দেখেই এই মুহূর্তে সতর্কতা অবলম্বন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। তাই আগামী ১৬ মার্চ অর্থাৎ সোমবার থেকে রাজ্যের সমস্ত সরকারি ও বেসরকারি স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, মাদ্রাসা এবং অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হবে। আপাতত ৩১ মার্চ পর্যন্ত জারি থাকবে এই নির্দেশিকা।

আরও পড়ুন: করোনাভাইরাসে কোন দেশে কত আক্রান্ত, মৃত্যুই বা হয়েছে কতজনের, প্রতি মুহূর্তের আপডেট জানতে পড়ুন

নবান্নের তরফে জারি করা এই নির্দেশিকায় আরও বলা হয়েছে, এই সময়ের মধ্যে যে সব স্কুলে অভ্যন্তরীণ পরীক্ষা চলছিল, সেগুলিও এই মুহূর্তে বন্ধ রাখতে হবে। তবে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা বন্ধ হবে না। সূচি অনুযায়ীই উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা চলবে বলে জানানো হয়েছে।

ভারতে দিন দিন বাড়ছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। এই মুহূর্তে তা ৮৩। ইতিমধ্যেই কর্ণাটক ও দিল্লিতে মৃত্যু হয়েছে ২ জনের। এর আগে একাধিক রাজ্যে এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কর্ণাটক, কেরল, দিল্লি, মহারাষ্ট্র, রাজস্থান, হরিয়ানা, বিহার, ঝাড়খণ্ডের মতো রাজ্য আগেই স্কুল-কলেজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে। পরীক্ষাও বন্ধ হয়ে গিয়েছে বেশ কিছু রাজ্যে।

আরও পড়ুন রোগ লুকোবেন না, করোনা মোকাবিলায় ২টি আইসোলেশন ওয়ার্ড রেডি আছে রাজারহাটে: মমতা

পশ্চিমবঙ্গে এখনও করোনা আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া যায়নি। তবে রাজ্য সরকার ইতিমধ্যেই একাধিক সতর্কতা অবলম্বন করেছে। অনেক হাসপাতালে চালু করা হয়েছে আইসোলেশন ওয়ার্ড। কোনও জায়গায় করোনা সন্দেহ হলেই তাকে পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে। সেইসঙ্গে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বারবার জনসাধারণকে জানাচ্ছেন, এই পরিস্থিতিতে কী কী সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত।

এই সিদ্ধান্তের পরে সংবাদমাধ্যমকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, “এই রাজ্যে বাইরে থেকে অনেক লোক আসছেন। এটা মানুষে মানুষে ছড়ায়। বাচ্চাদের মধ্যেই এই ভাইরাস আগে ছড়ায়। তাই আমরা আগে থেকেই ব্যবস্থা নিচ্ছি। ভয় পাওয়ার কিছু নেই। শিক্ষকরাও বাড়ি থেকে কাজ করবেন। সতর্কতা অবলম্বন করুন। আমরা ৩০ মার্চ ফের একবার বৈঠক করব। সেই সময় পরিস্থিতি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব।”

You might also like