Latest News

রেল দুর্ঘটনায় মৃত অজিতের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী-পরিবারের পাশে অগ্নিমিত্রা

দ্য ওয়াল ব্যুরো : ময়নাগুড়ির দোমহনিতে ভয়াবহ রেল দুর্ঘটনায় এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৯ জনের। মৃতদের মধ্যে রয়েছেন আসানসোলের বাসিন্দা রেলকর্মী অজিত প্রসাদ। মাত্র একবছর আগেই বিয়ে হয়েছিল অজিতের। বাড়িতে রয়েছেন তাঁর ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী, বোন, বাবা এবং দুই ভাই। শোকে ভেঙে পড়েছে গোটা পরিবার। অজিতের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী-পরিবারের পাশে দাঁড়িয়ে সব রকম সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পল।

আসানসোলের বাসিন্দা মাত্র ৩১ বছর বয়সী অজিতের কর্মস্থল ছিল আসামে। কর্মক্ষেত্রে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন তিনি। ময়নাগুড়ির দুর্ঘটনাগ্রস্ত ট্রেনে ওঠাবার কথাই ছিল না তাঁর। কিন্তু তিনি শিলিগুড়ি থেকে ট্রেন পাল্টে আপ বিকানের-গুয়াহাটি এক্সপ্রেসে চাপেন। অবসরে বাড়িতে আসতেন তিনি। শনিবার বাড়িতে এলেন কফিনবন্দি হয়ে। এদিন অজিতের দেহ আসানসোলের বাড়িতে এসে পৌঁছলে তাঁকে শেষবার দেখার জন্য এলাকার মানুষের ঢল নামে। শ্রদ্ধা জানাতে আসা জনৈক মহিলা বলেন, আমাদের ওয়ার্ডেরই ছেলে। খুবই কমবয়সী ছেলে। এভাবে চলে গেল, খারাপ লাগছে। বউটার জন্যও ভীষণ খারাপ লাগছে। সবচেয়ে বড় ক্ষতি তো তাঁরই হয়েছে।

আগের দিন রাতেই খবর পেয়েই অজিত প্রসাদের পরিবারের লোকজনের সঙ্গে দেখা করেন স্থানীয় বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পল। তখনও অজিতের স্ত্রী ও বাবাকে জানানো হয়নি দুঃসংবাদ। কেবল অজিতের বোন জানতেন সেই খবর। অজিতের অন্য দুই ভাই গিয়েছিলেন ময়নাগুড়িতে দাদার মৃতদেহ আনতে। এদিন অজিতের মৃতদেহ আসে শহরে। শ্রদ্ধা জানাতে আসেন অগ্নিমিত্রাও। তিনি বলেন, খুবই মর্মান্তিক ঘটনা। ওঁর স্ত্রী ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। কালই রেল দফতরে কথা বলেছি। তাঁরা বলেছেন এবং আশ্বাস দিয়েছেন, অজিতের স্ত্রী রেলে চাকরি পাবেন। সেক্ষেত্রে তিনি আসামে চাইলে আসামে, অথবা আসানসোলে চাইলে আসানসোলেই পোস্টিং হবে।

আসানসোল দক্ষিণের বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পল আরও জানান, রেলকর্মীর মৃত্যু-পরবর্তী সমস্ত ধরনের সুযোগ-সুবিধা পাবেন অজিতের স্ত্রী ও পরিবার। সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী ক্ষতিপূরণ হিসেবে ৫ লক্ষ টাকাও পাবেন তাঁরা। মৃতের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে অগ্নিমিত্রা বলেন, চাকরি বা টাকার ক্ষতিপূরণই তো সব নয়। মানুষটাকে তো আর পাওয়া যাবে না। গোটা পরিবারটাই যে শেষ হয়ে গেল। এই অবস্থায় কেন্দ্রীয় সরকার ওঁর পরিবারের পাশে আছে। আমি দিদিভাই হিসেবে পাশে আছি। সবরকমভাবে পাশে আছি।

You might also like