Latest News

দিদি-মোদী নিয়ে সরব অধীর, নীরব বাম-কংগ্রেস বোঝাপড়ায়

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মোদীর সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আঁতাতের প্ৰশ্ন তুলে ফের সরব প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরী। কিন্তু আসন্ন কলকাতা ও হাওড়া পুরভোটে বামেদের সঙ্গে জোট প্রসঙ্গ জেলা নেতৃত্বের দিকে ঠেলেই ‘নীরব’ রইলেন কংগ্রেস সাংসদ।

গতকালই প্রধানমন্ত্রী তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহার করার ঘোষণা করেছেন, তারপর থেকেই খুশির হাওয়া দেশজুড়ে। এই জয়কে কৃষকদের জয় বলে মনে করছেন অধীরবাবু। এদিন তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, ‘দেশের কৃষক সম্প্রদায়ের কাছে মাথা নত করে ক্ষমা চাইতে হয়েছে ৫৬ ইঞ্চির মোদীকে। যা এই দীর্ঘ আন্দোলনের জয়।’

তবে মোদী ঘোষণা করলেও কৃষকদের দাবি, যতক্ষণ না সংসদে এই আইন প্রত্যাহার করা হবে ততক্ষণ আন্দোলন চলবে। এই প্রসঙ্গে বহরমপুরের সাংসদ বলেন, ‘মোদী রাজনৈতিক মূল্যবোধ হারিয়ে ফেলেছেন। তাই দেশের প্রধানমন্ত্রীর কথা আজ কেউ বিশ্বাস করছেন না। তিনি বারবার দেশের কৃষক সমাজের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে তাতেই এমন ঘটেছে।’

মমতার আসন্ন দিল্লি সফর প্রসঙ্গে কটাক্ষ করে কংগ্রেস নেতা বলেন, ‘এতদিন কোথায় ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়? কৃষকদের হয়ে কটা আন্দোলন করেছে তৃণমূল? যখন যন্তর মন্তরে কৃষকরা আন্দোলন করছেন তখন তিনি দিল্লি ছিলেন, কিন্তু তাঁকে আন্দোলনে দেখা যায়নি।’

এই প্রসঙ্গেই তৃণমূল-বিজেপির আঁতাত নিয়ে সরব হন অধিরবাবু। তিনি বলেন, ‘তৃণমূল বিজেপির কাছে সুপারি নিয়ে বিরোধীদের অস্ত্বিত্বহীন করার চেষ্টা করছে। দেখাই যাচ্ছে সারদা, নারদ, কয়লা কাণ্ড একের পর এক তদন্ত থেমে যাচ্ছে। চুপ মোদীও। বাংলার মানুষ বোকা নন।’

কিন্তু আসন্ন কলকাতা-হাওড়া পুরভোটে বামেদের সঙ্গে জোট করবেন কিনা সেই প্রসঙ্গ খানিকটা এড়িয়েই গেলেন কংগ্রেস সাংসদ। বললেন, ‘এই সিদ্ধান্ত পুরোটাই জেলা নেতৃত্ব নেবেন। এখানে প্রদেশ কংগ্রেস কোনও কোনও সিদ্ধান্ত নেবেনা। জেলা নেতৃত্বকে ডেকে আসন্ন নির্বাচন নিয়ে সমস্ত দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।’

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা সুখপাঠ

You might also like