Latest News

SSC: শান্তিপ্রসাদ সিনহাকে সিবিআইয়ের মুখোমুখি হতেই হল, পুলিশ তাঁকে নিয়ে এল নিজাম প্যালেসে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: স্কুল সার্ভিস কমিশনের (SSC) প্রাক্তন উপদেষ্টা শান্তিপ্রসাদ সিনহা (Shanti Prasad Sinha) শত চেষ্টা করেও সিবিআইয়ের জেরা এড়াতে পারলেন না। বরং হাইকোর্টের নির্দেশে মঙ্গলবার বিকেলে তাঁকে ফের হাজিরা দিতে হল নিজাম প্যালেসে। তাঁকে বসিয়ে এদিন রাত ৮টা পর্যন্ত জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন সিবিআইয়ের একাধিক গোয়েন্দা। সিবিআইয়ের উপদেষ্টা কমিটির বাকি চার সদস্যকে ইতিমধ্যেই জেরা করেছেন সিবিআই গোয়েন্দারা। তাঁদের থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে শান্তিপ্রসাদকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা এজেন্সি সূত্রের খবর।

আরও পড়ুন: জাতীয় সুরক্ষা নিয়ে ‘ভুয়ো’ তথ্য সম্প্রচার! ২২টি ইউটিউব চ্যানেল ‘ব্লক’ করল কেন্দ্র

বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় এর আগে বলেছিলেন এসএসসি-র প্রাক্তন কর্তাদের হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারবে সিবিআই। পরে সেই রায় কিছুটা বদলে দেয় হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। বিচারপতি সুব্রত তালুকদার ও বিচারপতি কৃষ্ণা ওরাওয়ের ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়ে দেয়, এখনই শান্তিপ্রসাদ সিনহাকে হেফাজতে নেওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই। তবে সিবিআইয়ের সঙ্গে তাঁকে সবরকম সহযোগিতা করতে হবে এবং সিবিআই ডাকলেই যেতে হবে।

শান্তিপ্রসাদ একা নন, মঙ্গলবার সিবিআইয়ের কাছ থেকে রক্ষাকবচ চেয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন স্কুল সার্ভিস কমিশনের প্রাক্তন কর্তারা। গ্রুপ ডি-তে ৯৮ জনের নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে, সেই মামলা চলছে উচ্চ আদালতে। হাইকোর্টের বিচারপতি সুব্রত তালুকদার এসএসসি কর্তাদের এদিন প্রশ্ন করেন, কেন সিবিআইয়ের মুখোমুখি হতে ভয় পাচ্ছেন শান্তিপ্রসাদ সিনহারা? জবাবে শান্তিপ্রসাদের আইনজীবী বলেন, আসলে ওঁর ৭০ বছর বয়স হয়েছে। তাই এই ধকল নিতে পারছেন না। কিন্তু তা শুনতে চাননি বিচারপতিরা। বরং পষ্টাপষ্টি বলেন, এর বেশি চাইলে খালি হাতে ফিরতে হতে পারে। অন্যদিকে সিবিআইয়ের আইনজীবী আদালতকে জানান, তাঁরা এখনই হেফাজতে নিতে চাইছেন না। তাঁরা শুধু কিছু প্রশ্নের উত্তর জানতে চাইছেন। সব শুনে এসএসসি-র উপদেষ্টা কমিটির সদস্যদের সিবিআইয়ের সঙ্গে সহযোগিতা করার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

হাইকোর্টের এই নির্দেশের পর আর উপায়ান্তর ছিল না। বিকেলে সওয়া ৫ টা নাগাদ নিজাম প্যালেসে সিবিআই দফতরে পৌঁছন শান্তিপ্রসাদ। সার্ভে পার্ক থানার পুলিশ তাঁকে গাড়ি করে সেখানে নিয়ে আসেন।

এদিনের গোটা পর্ব নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেছেন, নিয়োগ প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা থাকলে, সিবিআইয়ের সামনে যেতে ওঁদের অসুবিধা কোথায়। আসলে ওঁরা বুঝতে পারছেন, প্রশ্নের সদুত্তর দিতে গেলে আরও ফেঁসে যাবেন। কারণ, যে ৯৮ জনের চাকরি হয়েছিল, তাঁদের মধ্যে ৯০ জনের নাম তো প্যানেলেই ছিল না।

You might also like