Latest News

Sri Lanka : সরকারবিরোধী বিক্ষোভের জেরে ইস্তফা শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীর

দ্য ওয়াল ব্যুরো : শ্রীলঙ্কায় (Sri Lanka) ক্রমবর্ধমান সরকার বিরোধী বিক্ষোভের জেরে ইস্তফা দিলেন প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপক্ষে। এরপরে আরও অশান্ত হয়ে উঠেছে দ্বীপরাষ্ট্র। (Sri Lanka) শাসক দলের সমর্থকরা চড়াও হয়েছেন বিরোধীদের ওপরে। কলম্বোয় একটি জায়গায় বিরোধীরা বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন। এদিন শাসকদলের অনুগামীরা সেখানে জড়ো হন। বিরোধীদের সঙ্গে তাঁদের সংঘর্ষ হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে ও জলকামান ব্যবহার করে।

কয়েকমাস ধরে ব্যাপক অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে পড়েছে শ্রীলঙ্কা (Sri Lanka)। দেশের অনেক জায়গায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে রয়েছে। খাবার, জ্বালানি ও ওষুধও পাওয়া যাচ্ছে না। এই পরিস্থিতিতে দেশে শুরু হয়েছে সরকার বিরোধী আন্দোলন। এদিন সরকারের সমর্থক বনাম বিরোধীদের সংঘর্ষে আহত হয়েছেন ৩৬ জন। অশান্তির মধ্যে যাতে জ্বালানি ও অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের সরবরাহে বিঘ্ন না ঘটে, সেজন্য মোতায়েন করা হয়েছে সেনাবাহিনী।

ইস্তফা দেওয়ার আগে মাহিন্দা রাজাপক্ষে (Sri Lanka) এদিন ৩ হাজার সমর্থকের সামনে ভাষণ দেন। তিনি বলেন, যে কোনও মূল্যে দেশের স্বার্থ রক্ষা করবেন। এরপরে তাঁর সমর্থকরা বিরোধীদের পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুন ছিঁড়ে ফেলে। তারা বিরোধীদের ধরনাস্থলে গিয়ে স্লোগান দিতে থাকে ‘গো টু হোম’। অর্থাৎ তারা বিরোধীদের বলে, আন্দোলন থামিয়ে তোমরা বাড়ি ফিরে যাও।

শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষে টুইট করে বলেন, ‘দলমত নির্বিশেষে সকলের কাছে আবেদন জানাচ্ছি, আপনারা হিংসায় উস্কানি দেবেন না। হিংসার মাধ্যমে কোনও সমস্যার সমাধান হবে না।’ সরকার পক্ষের সমর্থক ও বিরোধীদের সংঘর্ষের পরে ঘটনাস্থলে যেতে চেয়েছিলেন বিরোধী এমপি সজিথ প্রেমদাসা। কিন্তু তিনি বিক্ষুব্ধ জনতার হামলার মুখে পড়েন। দেহরক্ষীরা কোনওমতে তাঁকে উদ্ধার করেন। অপর বিরোধী সাংসদ ইরান বিক্রমরত্নে টুইট করে বলেন, ‘হিংসায় উস্কানি দিয়েছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী।’

আরও পড়ুন : Monkeypox: ব্রিটেনে নতুন আতঙ্ক ‘মাঙ্কিপক্স’, সারা শরীরে র‍্যাশ-চুলকানি, কী থেকে ছড়াচ্ছে রোগ

You might also like