Latest News

সবার সঙ্গেই মঞ্চ মাতাবে বিশেষভাবে সক্ষম শিশুরাও, ফারাক মুছে সাম্যের লক্ষ্যে তৈরি হল নাটক

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বিশেষ ভাবে সক্ষম শিশুদের (special child) জন্য নয়া পদক্ষেপ। তাদের নিয়ে আয়োজিত হল ক্রীড়া প্রতিযোগিতা (sports)। সেই সঙ্গে সূচনা হল ‘ইউনিফায়েড থিয়েটারের’, (theatre) যা তাদের মননশীলতার এক নয়া মঞ্চ হয়ে উঠতে চলেছে।

প্যারালিম্পিক (paralympic) চলছে এখন। সেখান থেকেই ইউনিফায়েড থিয়েটারের ধারণার জন্ম হয়েছে। মূলত বিশেষভাবে সক্ষম এবং সেই সঙ্গে সাধারণ বাচ্চাদের নিয়ে মিলিতভাবে নাট্য পরিবেশনা করবে এই থিয়েটার। এর প্রধান উদ্দেশ্য হল, বিশেষভাবে সক্ষম এবং সাধারণ বাচ্চাদের মধ্যের দূরত্ব দূর করে তাদের মধ্যে সংযোগ স্থাপন করা। আমাদের সমাজের এমনই গঠন, সেখানে বিশেষ ভাবে সক্ষম শিশুরা সাধারণ বাচ্চাদের সঙ্গে মেলামেশার সুযোগ পায় না বলতে গেলে। এমনকি বহু ‘সুস্থ’ মানুষ বিশেষ বাচ্চাদের পাগল বা অ্যাবনর্মাল বলে থাকে। সাবলীল বাচ্চাদের সঙ্গে যে তারাও পা মেলাতে পারে, একসঙ্গে কিছু করতে পারে, তা যেন ভাবেই না কেউ।

আরও পড়ুন: ভারতে রুপো এল প্যারালিম্পিকে

ইউনিফায়েড থিয়েটারের জনক সিভিলিয়ান ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন সেই জায়গা থেকেই দাবি করছে, এখনও পর্যন্ত ভারতে কোথাও এই দুই বাচ্চাদের সম্মিলিত অনুষ্ঠান হয়নি। তারাই প্রথম করছে এই কাজ। তাদের করা নাটকটির মাধ্যমে সমাজের পিছিয়ে পড়া সম্প্রদায়ের বাচ্চাদের এবং বিশেষভাবে সক্ষম বাচ্চাদের সাম্যতার ও তাদের ন্যায্য অধিকারের বিষয় তুলে ধরা হয়েছে।

১৯৬৮ সালে ভারত প্রথম প্যারালিম্পিকে যোগদান করে। দুঃখের বিষয় এত বছর পরেও অনেকেই প্যারালিম্পিক সম্পর্কে অবগত নয়। এর কারণ হয়তো বিশেষভাবে সক্ষম বাচ্চারা খেলার মাঠে তাদের অধিকার পেলেও সমাজ তাদের মাঠ ছাড়ছে না।সিভিলিয়ান ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন আরও বিভিন্ন সামাজিক বিষয়, যেমন চাইল্ড এডুকেশন রাইটস, এলজিবিটি কিউ রাইটস, ডিসেবিলিটি রাইটস, স্পোর্টস, চাইল্ড রাইটস নিয়ে কাজ করে। পিছিয়ে থাকাদের সমাজের মূল স্রোতে নিয়ে আসাই তাদের লক্ষ্য।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like