Latest News

সিট কাজ করছে না, এরকম চললে ব্যবস্থা নেব, কড়া পর্যবেক্ষণ হাইকোর্টের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভোট পরবর্তী হিংসার তদন্তকে দুভাগে ভাগ করেছে কলকাতা হাইকোর্ট (kolkata highcourt)। বড় মামলাগুলির তদন্ত ভার দিয়েছে সিবিআইকে। অপেক্ষাকৃত কম গুরুত্বপূর্ণ মামলার জন্য বিশেষ তদন্তকারী দল তথা সিট (SIT) গঠন করেছে আদালত। দেখা যাচ্ছে, সিবিআই জেলায় জেলায় ছুটলেও সিট এখনও মাঠেই নামেনি।

আরও পড়ুনঃ তালিবানের আদেশেই মহারাষ্ট্রে হিন্দু উৎসবে কোপ? প্রশ্ন বিজেপির

সিবিআই ছুটছে, সিট কই? এই প্রশ্ন তুলেই কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল মামলাকারীদের একাংশ। মঙ্গলবার সেই মামলার শুনানি ছিল। তার পর্যবেক্ষণে তাত্‍পর্যপূর্ণ মন্তব্য করলেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দাল। এদিন তিনি বলেন, সিট যে কাজ করছে না সেটা আমরা জানি। প্রয়োজনে পদক্ষেপ করা হবে।

বিশেষ তদন্তকারী দল তথা সিটে রয়েছেন কলকাতার পুলিশ কমিশনার সৌমেন মিত্র, আইপিএস সুমনবালা সাউ এবং রণবীর সিং।কিন্তু হাইকোর্ট নির্দেশ দেওয়ার ১০ দিন কেটে গেলেও সিট এখনও কেন কাজ শুরু করল না সেই প্রশ্ন তুলে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে মামলাকারীদের একাংশ। তাঁদের মোদ্দা বক্তব্য, ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে হাইকোর্টের নির্দেশ যথাযথ পালন হচ্ছে না।

মামলাকারীদের অনেকে বলছেন, গত ১৯ অগস্ট হাইকোর্ট নির্দেশ দিয়েছে ৬ সপ্তাহের মধ্যে রিপোর্ট দিতে। এখনও সিট কাজই শুরু করেনি। তাহলে তারা আদালতে কী রিপোর্ট দেবে? সিটকে তো দেখাই যাচ্ছে না। কোথায় তাঁরা?

সিবিআই ইতিমধ্যেই জেলায় জেলায় ঘোরা শুরু করে দিয়েছে। শুধু আক্রান্ত বা নিহতদের পরিবারের সঙ্গে কথা বলা নয়। কোচবিহার থেকে ডায়মন্ড হারবার পর্যন্ত জেলায় জেলায় বিভিন্ন ঘটনার তদন্তে নেমে একের পর এক এফআইআর দায়ের করছে কেন্দ্রীয় তদন্ত এজেন্সি। এখনও পর্যন্ত ২৮টি এফআইআর দায়ের করেছে সিবিআই। সোমবারও শান্তিনিকেতন থানা, নানুরে গিয়েছিল কেন্দ্রীয় এজেন্সি। কিন্তু সিটের ভূমিকা নিয়ে আদালতও এদিন কড়া পর্যবেক্ষণ দিল। যা নবান্নের উপর চাপ বাড়াবে বলেই মত অনেকের।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like