Latest News

আন্দোলন করলেই কি চাকরি দিতে হবে: ব্রাত্য বসু

দ্য ওয়াল ব্যুরো: চাকরির দাবি নিয়ে রাজ্যজুড়ে আন্দোলন চলছে। নিয়োগ দুর্নীতি থেকে চাকরিতে বেনিয়ম নানা অভিযোগ নিয়ে সরগরম রাজ্য রাজনীতি। গান্ধী মূর্তি থেকে শুরু করে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের (Primary Education Board) সামনে ধর্না বিক্ষোভ, সব মিলিয়ে ধুন্ধুমার কাণ্ড। এরই মধ্যে পর্ষদ নতুন করে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে। কিন্তু তাতেও আন্দোলন প্রশমিত হয়নি। সেই নিয়ে এক সংবাদমাধ্যমের সাক্ষাৎকারে শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু (Bratya Basu) বলেন, ‘আন্দোলন করলেই কি সকলকে চাকরি দিতে হবে? এটা সম্ভব নয়। চাকরির সঙ্গে আন্দোলনের কোনও সম্পর্ক নেই।’

ব্রাত্য এদিন সাক্ষাৎকারে স্পষ্ট করে দিলেন যে, শুধু আন্দোলন করেই চাকরি পাওয়া যাবে না। তিনি বলেন, ‘চাকরি হয় যোগ্যতা ও মেধার ভিত্তিতে। আন্দোলন মামলা দিয়ে নিয়োগ প্রক্রিয়া ব্যাহত হলে তা নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে।’

এরপরই তিনি প্রশ্ন তোলেন, ‘নেট পাস করে কি সবাই চাকরি পান? জয়েন্ট পাস করে কি সবাই ইঞ্জিনিয়ারিং সুযোগ পায়? এভাবে আন্দোলন চললে সরকারের কাজ করা মুশকিল হয়ে যায়। বিরোধীরা চান না অধিকাংশরা চাকরি পাক।’

দিন কয়েক আগেই করুণাময়ীতে পর্ষদের সামনে ২০১৪ টেট উত্তীর্ণ নন ইনক্লুডেড চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলন ঘিরে উত্তাল হয়ে ওঠে সল্টলেক চত্বর। ৯০ ঘণ্টা ধরে রাস্তায় বসে থাকা আন্দোলনকারীদের মাত্র ১৫ মিনিটে তুলে দেয় পুলিশ। সেই নিয়েও প্রতিবাদ চলে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে। পর্ষদ স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিল, আন্দোলনকারীদের দাবি মানা সম্ভব নয়। সবাইকেই নিয়ম মেনে চাকরি প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে হবে।

পার্থর সঙ্গে দল নেই, দলের সঙ্গে থাকার ১০০ অঙ্গীকার পার্থর

You might also like