Latest News

শাহ্ ফার্সি শব্দ, তা হলে কি বিজেপি সভাপতিরও নাম বদলানো উচিত নয়? প্রশ্ন তুললেন ইরফান হাবিব

দ্য ওয়াল ব্যুরো: নাম-বদলের ট্রেন্ড শুরু হয়েছে যেন। পরপর বদল হচ্ছে বিভিন্ন জায়গার নাম। সৌজন্যে কেন্দ্রীয় সরকার। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়েছে অজস্র জোকস, মিম। ছদ্ম-আতঙ্কের মোড়কে মজার বক্তব্য পরিবেশিত হচ্ছে দিনভর। এর মধ্যে একটি ছদ্ম ইভেন্ট-ও খুলে ফেলেছেন কেউ, যাঁর শিরোনাম– “বিরিয়ানির নাম বদলে স্মৃতি ইরানি করার দাবি”। এই মজার আবহেই উঠে গেল অন্য একটি নাম নিয়ে। তা-ও আবার যার তার নাম নয়, বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ্-এর নাম।

আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের এমেরিটাস অধ্যাপক, প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ ইরফান হাবিব প্রশ্ন তুলেছেন অমিত শাহ্-এর নাম নিয়ে। অমিত শাহের পদবী প্রসঙ্গে হাবিব বলেন, ”শাহ শব্দটাই তো পার্সি। মোটেই সংস্কৃত থেকে আসেনি। তাহলে সবার আগে নেতাদের নামই পরিবর্তন করা উচিত। শহরের নাম পরিবর্তন করার আগে নিজেদের নাম পাল্টে ফেলাই জরুরি।”

শুধু অমিত শাহ্-এর নাম নয়। ইরফান হাবিব প্রশ্ন তোলেন গুজরাতের নাম নিয়েও। তিনি বলেন, “গুজরাত নামটিও এসেছে গুর্জরত্র শব্দ থেকে। এর শিকড়ও তো সেই পারস্যে। তা হলে সেটাও বদলাক।”

ইরফানের বক্তব্যের পরে নড়ে বসেছেন অনেকেই। বক্তব্যের সপক্ষে মত রেখেছেন। কেউ কেউ তো এই সুযোগে এ-ও প্রশ্ন তুলেছেন, ‘হিন্দু’ শব্দটিও পারস্যের মানুষের মুখে প্রচলিত হয়ে এসেছে। তা হলে কি সেটাও বদলাবে?

কয়েক মাস ধরেই এলাহবাদ, আমেদাবাদ, ফৈজাবাদ– একের পর এক শহরের নাম বদলে ফেলার দাবি উঠছে বিজেপির তরফে। মুঘল আমলে দেওয়া সেসব ঐতিহ্যবাহী শহরের নাম বদল নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। এবার পাল্টা প্রশ্ন উঠল বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির নাম  নিয়েই। গেরুয়া শিবিরে সর্বময় কর্তাই প্রশ্নর মুখে।

এর আগে একই কথা বলেছেন উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী ওমপ্রকাশ রাজভর। তিনিও বলেন, “বিজেপির উচিত মুসলিম নেতাদের নাম সবার আগে পরিবর্তন করা। এই প্রসঙ্গে তিনি বিজেপি মুখপাত্র শাহনওয়াজ হুসেন, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মুক্তার আব্বাস নকভি ও উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী মহসিন রাজার নাম বলেন। তিনি বলেন, বিজেপির যদি মনে হয় যে মুঘলসরাই বা ফৈজাবাদের নাম মুঘলদের নামে রাখা হয়েছে, তাহলে এই তিন নেতার নাম সবার আগে বদলে ফেলা উচিত।” তিনি আরও প্রশ্ন তোলেন, ”মুসলিমরা অনেক কিছু করেছে। জিটি রোড কি আমরা পরিত্যাগ করব? রেড ফোর্ট বা তাজ মহলই বা কারা বানিয়েছে?’

You might also like