Latest News

অরুণাচলে দ্বিতীয় এনক্লেভ, ৬০টি বাড়ি বানিয়েছে চিন, স্যাটেলাইট ছবি প্রকাশ্যে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অরুণাচল প্রদেশে (arunachal pradesh) চিনের (china)তৈরি নতুন এনক্লেভের (enclave) ছবি পেল সংবাদমাধ্যম। ২০১৯ এর স্যাটেলাইট (satellite) চিত্রে এই ক্লাস্টারের অস্তিত্ব ছিল না। কিন্তু দ্বিতীয় চিত্রে স্পষ্ট, চিন উত্তরপূর্ব সীমান্তের এই রাজ্যে অন্ততঃ ৬০টি বাড়ি (house) নির্মাণ করেছে। অরুণাচলে চিনের তৈরি একটি গ্রামের প্রায় ৯৩ কিমি পূর্বে এই নতুন চিনা ঘাঁটি গড়ে উঠেছে।

জানুয়ারি মাসে প্রথম শোনা গিয়েছিল, চিন অরুণাচলের ভারতীয় ভূখণ্ড কব্জা করে গ্রাম বানিয়েছে।  সম্প্রতি আমেরিকার পেন্টাগনও চিনের দখলদারির খবর সঠিক বলে রিপোর্টে নিশ্চিত করেছে, যার জেরে ভারত তীব্র প্রতিবাদ, নিন্দা করেছে চিনের আগ্রাসী মানসিকতার। বলেছে, চিন গত কয়েক দশক ধরে  বেআইনিভাবে দখল করে থাকা এলাকা সহ  সীমান্ত এলাকা বরাবর গত কয়েক বছর ধরেই নির্মাণকাজ চালিয়ে যাচ্ছে। ভারত কখনই এই বেআইনি দখলদারি বা চিনের অন্যায় দাবি মেনে নেয়নি।

চিনের নতুন এনক্লেভের অবস্থান হল প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা ও আন্তর্জাতিক সীমান্ত বরাবর এলাকায় ভারতীয় ভূখণ্ডের ৬ কিমি ভিতরে। ভারতের বরাবরের দাবি, ওই জমি তার নিজের। এ ব্যাপারে  ভারতীয় সেনাবাহিনী বলেছে, যে লোকেশনের কথা বলা হচ্ছে, সেটি চিনা ভূখণ্ডে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার উত্তরে। অর্থাত্ চিনের অবৈধ ভাবে দখল করা ভারতীয় ভূখণ্ডে। জনৈক সেনা অফিসারের বক্তব্য, এলাকাটি এলএসি-র উত্তরে বলে ইঙ্গিত, যার অর্থ ভারতের জমিতেই  নতুন এনক্লেভ তৈরি হয়েছে। এ ব্যাপারে অবশ্য অরুণাচলের মুখ্যমন্ত্রী, উপমুখ্যমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

গত সপ্তাহে পেন্টাগনের রিপোর্টের প্রেক্ষিতে ভারত সরকারের প্রতিক্রিয়ায় স্পষ্ট, চিন এমন নির্মাণকাজের মাধ্যমে ভারতীয় ভূখণ্ড আত্মসাত্ করার চেষ্টা করেছে।

বছরখানেক আগে সংসদে অরুণাচল প্রদেশের বিজেপি এমপি তাপির গাও বলেছিলেন, দেশের সংবাদমাধ্যমকে বলতে চাই, চিন যেভাবে অরুণাচলে ভারতীয় জমি দখল করেছে, তার তেমন কভারেজ  হয়ইনি। ২০১৭ সালে বেশ কয়েক মাস ধরে চলা ডোকালামে ভারত-চিন সংঘাতের উল্লেখ করে তিনি হুঁশিয়ারি দেন, আরেকটা ডোকালাম যদি কখনও ঘটে, তবে তা হবে অরুণাচলে।

বিশ্বের দুটি প্রথম সারির স্যাটেলাইট ইমেজ সরবরাহকারী সংস্থা ম্যাক্সার টেকনোলজিস ও  প্ল্যানেট ল্যাবস চিনের নতুন এনক্লেভের ছবি হাজির করেছে। অরুণাচলের শি-ইয়োমি জেলার ছবিগুলিতে স্পষ্ট, শুধু কয়েক ডজন নতুন বাড়িই হয়নি, সেগুলি এত বড় যে, ইমেজিং স্যাটেলাইটে ধরা পড়বেই। একটি বাড়ির মাথায় চিনের পতাকা  পতপত করে উড়ছে। মানে পতাকা দেখিয়ে চিন দাবি করতে চাইছে,এলাকাটা তাদের। ভারত সরকারের অনলাইন ম্যাপ পরিষেবাদাতা ভারতম্যাপসও নতুন এনক্লেভের ছবি দিয়েছে।

You might also like