Latest News

৭ সেনার প্রাণ গিয়েছে ৫ দিনে, জঙ্গিনিধনে রাজৌরি-পুঞ্চে চলছে চিরুনি তল্লাশি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: জম্মু ও কাশ্মীরের রাজৌরি-পুঞ্চ এলাকায় প্রবল তল্লাশি (Search operation) চলছে সেনা-পুলিশের যৌথ উদ্যোগে। ১১ তারিখ এই এলাকাতেই সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান চালাতে গিয়ে এক জুনিয়র কমিশনড অফিসার (জেসিও)-সহ পাঁচ সেনা কর্মী নিহত হন জঙ্গি হামলায়। এর পরে ফের ১৪ তারিখ সেখানে জঙ্গিদের গুলিতে জখম হন সেনার দুই রাইফেলম্যান, পরে তাঁরা প্রাণ হারান হাসপাতালে। 

এর পরেই দ্বিগুণ শক্তিতে এলাকায় ঝাঁপিয়ে পড়েছে সেনা। দেহরা কি গালি এলাকার বনাঞ্চলে রীতিমতো চলছে চিরুনি তল্লাশি।

সেনাবাহিনীর তরফে এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, সেই ১০ তারিখ থেকে জঙ্গিদের পিছনে ধাওয়া করছেন জওয়ানরা। কিন্তু জঙ্গল এলাকায় কোথায় তারা লুকিয়ে, তা বোঝা যাচ্ছে না। এমন অবস্থায় ১১ তারিখ তারা ঝাঁঝরা করে দেয় ৫ সেনাকে।

এর পরে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে আচমকাই পুঞ্চ জেলায় নতুন করে সেনাবাহিনীর সঙ্গে জঙ্গিদের গুলির লড়াই শুরু হয়। তাতে এক জেসিও এবং এক জওয়ান গুরুতর আহত হয়ে পরে মারা যান। এই গোটা পর্বে কোনও জঙ্গি নিহত হয়েছে কিনা, তা জানানো হয়নি এখনও। ওই এলাকায় ঠিক কত জন জঙ্গি লুকিয়ে রয়েছে, তাও এখনও জানায়নি সেনা।

ধোনি বাবা হচ্ছেন আবার! রায়নার স্ত্রীর মন্তব্য ঘিরে নেট মাধ্যমে জোর চর্চা

পুলিশ সূত্রের খবর, এই বছরেই অগস্ট মাসে একটি হিটলিস্ট প্রকাশের পর থেকে নিরাপত্তা বাহিনী কয়েক জন শীর্ষ জঙ্গিকে টার্গেট করছে। এদের মধ্যে সবার প্রথমে যার নাম রয়েছে, সে হল উমর মুস্তাক খান্দে। এ বছরের গোড়াতেই শ্রীনগরে দুই পুলিশকে মেরেছিল এই লস্কর জঙ্গি।

খান্দে ছাড়া অন্য শীর্ষ টার্গেটদের মধ্যে রয়েছে সেলিম পার্রে, ইউসুফ কান্তরু, আব্বাস শেখ, রিয়াজ শেটারগুন্ড, ফারুক নালী, জুবায়ের ওয়ানি, আশরাফ মোলভি, সাকিব মনজুর এবং ওয়াকিল শাহ।

গোটা এলাকা ঘিরে রেখেছে পুলিশ ও সেনা। মাঝেমধ্যেই শোনা যাচ্ছে গোলা-বারুদের শব্দ। এলাকাবাসী ভয়ে সিঁটিয়ে রয়েছে। প্রতিটি বাড়িতে, গলিতে গিয়ে গিয়ে তল্লাশি চালাচ্ছে নিরাপত্তা বাহিনী। এমনকি পুঞ্চ-জম্মু হাইওয়েও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে৷

এসবের মধ্যেই গোয়েন্দা সূত্রে খবর মিলেছে, সম্প্রতি পাক অধিকৃত কাশ্মীরের মুজফফরাবাদে জঙ্গি সংগঠনের সদস্যদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিল পাক গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টার সার্ভিলিয়েন্স এজেন্সি (আইএসআই)-এর আধিকারিকেরা। সেখানেই ভারতীয়দের হত্যার ছক কষা হয়েছে বলে আশঙ্কা। জম্মু ও কাশ্মীরে বড়সড় হামলার পরিকল্পনা করা হয়েছে বলেও জানা গেছে। কাশ্মীর পুলিশ, সেনাবাহিনী বা গোয়েন্দাদের সঙ্গে কাজ করে, এমন কর্মীদের চিহ্নিত করে হত্যা করা হতে পারে। পাশাপাশি সেই তালিকায় রয়েছে বহু কাশ্মিরী পণ্ডিতের নামও।

স্বাস্থ্য-সম্পর্কিত আপডেট পেতে পড়ুন ‘দ্য ওয়াল গুডহেল্থ’

You might also like