Latest News

ড্রয়ের হ্যাটট্রিক, চ্যাম্পিয়ন মুম্বইকে রুখে ১০ ম্যাচ পরেও জয়হীন ইস্টবেঙ্গল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দশ ম্যাচ পরেও জয়হীন ইস্টবেঙ্গল। প্রাপ্তি একটাই, গতবারের চ্যাম্পিয়ন মুম্বই সিটি এফসি-র মতো শক্তিশালী দলকে রুখে দিয়েছে রেনেডি সিংয়ের ছেলেরা। লাল হলুদের খেলায় প্রাণ ফিরলেও সমর্থকরা হতাশ, এখনও পর্যন্ত জয়ের দেখা না মেলায়। তিলক ময়দানের এই ম্যাচ শেষ হয়েছে গোল শূন্য অবস্থায়।

বছরের শেষে যা ছিল ছবি, সেই ছবি বদল হয়নি। শুধুমাত্র খেলার বদল ঘটেছে, সেই হারানো আত্মবিশ্বাস ফিরেছে দলের। সব থেকে বড় কথা, খেলায় একটি ছক না খাটলে অন্য ছকে দলকে খেলানোর চেষ্টা করেছেন অন্তবর্তকালীন কোচ। পরের ম্যাচে হয়তো স্প্যানিশ মারিও রিভেরা চলে আসবেন, সেইসময় নতুন আশা দেখা শুরু হবে।

এদিনের ম্যাচে ইস্টবেঙ্গল একমাত্র বিদেশী চিমাকে নিয়ে খেলেছে। না হলে বাকিরা ছিলেন ভারতীয়, এটি আইএসএলের বিজ্ঞাপন হতে পারে। ম্যাচের সেরা হন রক্ষণের সৌরভ দাস।

মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচটি রেনেডির কাছে ছিল চিন্তার। বিপক্ষ দলের শক্তি, অন্যদিকে সেখানে দলের দুই বিদেশি ডিফেন্ডারই চোটের জন্য বাইরে ছিলেন। চোটের জন্য বাইরে ড্যারেনও। কার্ড সমস্যায় নেই পেরোসেভিচ। ফলে চিমাকে সামনে রেখেই দল সাজিয়েছিলেন রেনেডি।

শুধু তো প্রতিপক্ষের ডেরায় গিয়ে আক্রমণ নয়, মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে ডিফেন্স সামলানোও ছিল বড় চ্যালেঞ্জ। দ্বিতীয়ার্ধে কেবলমাত্র একবার গোলের সুযোগ তৈরি করতে পেরেছিল লাল-হলুদ। তবে ৯০ মিনিট মুম্বইয়ের স্ট্রাইকারদের আটকে দিয়েই এদিন কোচকে স্বস্তি দিলেন ডিফেন্ডাররা। ম্যাচের শেষ লগ্নে তো মুম্বইয়ের প্রায় নিশ্চিত গোল আটকে দেন অরিন্দম।

নিখাদ ভারতীয়দের নিয়ে শক্তিশালী বিপক্ষ দলের সঙ্গে লড়াই করেছে ইস্টবেঙ্গল। কিন্তু তাদের মতো বড় দলের সমর্থকরা একটা জয়ের জন্য কতদিন অপেক্ষা করবেন, কেউ জানে না। একটা দলের গভীরতা থাকলে সেই দলের জয়ের জন্য এতদিন অপেক্ষা করতে হয় না। স্রেফ ভাল খেলে কিছু হবে না, গোলের সুযোগ কাজে লাগিয়ে অধরা জয় দেখাই মুখ্য লক্ষ্য লাল হলুদের লক্ষ লক্ষ সমর্থকদের।

মুম্বই এক পয়েন্ট পেয়ে তালিকার শীর্ষে চলে গেল ১৭ পয়েন্ট পেয়ে। আর লাল হলুদ দল ১০ ম্যাচে পরে ছয় পয়েন্ট অর্জন করে লাস্ট বয়। যদিও যে দলটির কাছে এটিকে মোহনবাগান পাঁচ গোল হজম করেছিল, সেই দলের বিরুদ্ধে গোল না খাওয়া, ড্র রাখাও সমান কৃতিত্বের লাল হলুদের কাছে।

ইস্টবেঙ্গল: অরিন্দম ভট্টাচার্য, হীরা মন্ডল, আদিল খান, অমরজিৎ সিং কিয়াম, জয়নের লরেনকো, সৌরভ দাস, হামতে, হাওকিপ, জাইরু, আঙ্গুসানা, ড্যানিয়েল চিমা।

You might also like