Latest News

মঞ্চে উঠেই রুশদির ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ল আততায়ী, ১০-১৫টা ছুরির কোপ, এখনও আতঙ্কে প্রত্যক্ষদর্শীরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মঞ্চে উঠে তখন সবে পরিচয় পর্ব শুরু করেছেন বুকারজয়ী লেখক (Salman Rushdie)। গোটা প্রেক্ষাগৃহে আড়াই হাজারের বেশি দর্শক। বক্তৃতা শুরু করতেই মঞ্চে উঠে পড়লেন এক যুবক। পরনে কালো পোশাক, মুখ ঢাকা কালো মাস্কে। তখনও বোঝা যায়নি কী ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটতে চলেছে। প্রত্য়ক্ষদর্শীদের অনেকেই ভেবেছিলেন ওই ইভেন্টেরই কোনও স্টান্ট করতে উঠেছিলেন সেই যুবক। এর পরের ঘটনা হাড়হিম করে দেয় প্রেক্ষাগৃহের হাজার হাজার মানুষকে।

দর্শকদের মধ্যেই ছিলেন ক্যাথি জোনস। তিনি বলছেন, হাতে ছুরি নিয়ে রুশদির Salman Rushdie) ওপর আচমকাই ঝাঁপিয়ে পড়ে কালো পোশাক পরা সেই ব্যক্তি। তারপর এলোপাথাড়ি ছুরির কোপ বসাতে থাকে। রক্তে ভেসে যায় গোটা মঞ্চ। আয়োজকরা ছুটে আসতে আসতেই ১০-১৫ টা ছুরির কোপ বসিয়ে দিয়েছিল সেই আততায়ী। লুটিয়ে পড়েছিলেন রুশদি।

ভেন্টিলেটরে জীবনের লড়াই রুশদির, সুস্থ হলেও নষ্ট হতে পারে চোখ, লিভার

সলমন রুশদির (Salman Rushdie) ওপরে হামলায় স্তম্ভিত গোটা বিশ্ব। সেদিন প্রেক্ষাগৃহে যাঁরা ছিলেন তাঁদের আতঙ্ক এখনও কাটেনি। প্রত্য়ক্ষদর্শীদেরই একজন বলছেন, প্রবল আক্রোশে সেই আততায়ী হাতে ধরা ছুরি দিয়ে একের পর এক কোপ বসিয়ে যাচ্ছিল রুশদির ঘাড়ে-গলায় ও পেটে। মঞ্চে উপস্থিত আয়োজকরাই সঙ্গে সঙ্গে ধরে ফেলে ওই হামলাকারীকে। টেনে হিচড়ে তাঁকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, মাত্র ২০ সেকেন্ডের মধ্যেই রুশদির শরীরে কমপক্ষে ১০ থেকে ১৫টি কোপ মারা হয়।

রুশদির (Salman Rushdie ) চিকিৎসার দায়িত্বে থাকা ডাক্তাররা বলেছেন, অস্ত্রোপচারের পরে ভেন্টিলেটরে রাখা হয়েছে রুশদিকে। তাঁর মুখ থেকে শুরু করে পেটের বিভিন্ন অংশেও গুরুতর চোট লেগেছে । লিভারের অনেকটাই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। একটা হাতের সমস্ত নার্ভ ক্ষতিগ্রস্থ। শুধু তাই নয় একটি চোখ নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কাও করছেন চিকিৎসকরা।

নিউইয়র্ক স্টেট পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, হামলাকারীর পরিচয় জানা গেছে। তার নাম হাদি মাতার (২৪)। নিউজার্সির ওই বাসিন্দার কাছে রুশদির অনুষ্ঠানের পাসও পাওয়া গেছে। কী কারণে সে হামলা চালাল, তা জানার চেষ্টা করছে পুলিশ।

You might also like