Latest News

তুমুল বিতর্কে নরেন্দ্র মোদী! ‘জাতীয় প্রতীক যেন নরখাদক’, বিস্ফোরক লালু প্রসাদের দল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: নতুন সংসদ ভবনের মাথায় যে জাতীয় প্রতীক বসবে, সোমবার আনুষ্ঠানিকভাবে তার আবরণ উন্মোচন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যে তা নিয়ে বিতর্কের বিস্ফোরণ ঘটল দেশ জুড়ে।

কেন?

ভারতের জাতীয় প্রতীক হল অশোক স্তম্ভ (ashoka pillar)। বিরোধী রাজনৈতিক দল থেকে শুরু করে সাধারণ নাগরিকদের অনেকেরই মতে, মূল অশোক স্তম্ভের স্থ্যাপত্যের থেকে অনেক ফারাক রয়েছে এই নতুন স্মারকটির। এ ব্যাপারে সব থেকে বিস্ফোরক কথা বলেছে লালু প্রসাদ যাদবের দল আরজেডি। তাদের বক্তব্য, “মূল স্থাপত্যের মুখগুলোর মধ্যে একটা সৌম্য ভাব রয়েছে। আর অমৃত কালে (স্বাধীনতার ৭৫ বছরে) যে নতুন প্রতিমূর্তি তৈরি করা হয়েছে তার মুখ দেখে মনে হচ্ছে নরখাদক। যেন দেশের মানুষ, তার অতীত ও দেশকেই খেয়ে ফেলতে চাইছে”।

এখানেই থেমে থাকেনি আরজেডি। লালু প্রসাদদের বক্তব্য, প্রতিটি প্রতীকের মধ্যে মানুষের মনের ভাবের একটা প্রতিফলন থাকে। যার যেমন প্রবৃত্তি, তার প্রতীকে তেমন ভাবটাই দেখা যায়।

লালু প্রসাদদের এই তীর্যক ও ধারালো সমালোচনার মোদ্দা অর্থ যে কী তা কারও বুঝতে বাকি নেই। সর্বভারতীয় স্তরে বিরোধীরা সম্প্রতি বারবারই অভিযোগ করেছে যে দেশের সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলির গরিমা নষ্ট করছে বিজেপি তথা মোদী সরকার। উগ্র জাতীয়তাবাদের নামে সর্বগ্রাসী একটা প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। মহারাষ্ট্রে সম্প্রতি সরকার ভাঙা গড়াকে সামনে রেখেও সেই প্রশ্নটা উঠেছে।

নতুন প্রতীকের স্থপতি সুনীল দেওরা ও রোমিয়েল মোসেস অবশ্য দাবি করেছেন, তাঁরা স্থাপত্যে কোনও বদল করেননি। কিন্তু বিরোধীদের মতে, ছোট্ট শিশুও ফারাকটা করতে পারবে।

বিতর্ক এখানেই থেমে নেই। সংসদ ভবনের মাথায় যে জাতীয় প্রতীকটি বসবে, গতকাল প্রধানমন্ত্রী সেটির আবরণ উন্মোচন করেন। দেশের প্রশাসনিক প্রধান হলেন প্রধানমন্ত্রী। সংসদ ভবন একটি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান। কংগ্রেস, বামেদের বক্তব্য, আবরণ উন্মোচন করার কথা ছিল লোকসভার স্পিকার বা দেশের রাষ্ট্রপতির। কিন্তু মোদী ক্রেডিট নেওয়ার চক্করে সেটির উদ্বোধন করেন। আরও বড় কথা বল, বহুদলীয় ব্যবস্থায় সংসদ ভবন সবার। কিন্তু কোনও বিরোধী দলের নেতাকে গতকালের অনুষ্ঠানে ডাকা হয়নি। যার অর্থ একটাই। দেশে স্বৈরতন্ত্র চলছে। গণতন্ত্র বলে কিছু নেই। এই পরিবেশ আগামী দিনের জন্য ভয়াবহ পরিণতি ডেকে আনতে পারে।

আরও পড়ুন: দ্রৌপদীকেই সমর্থন, সিদ্ধান্ত বদলে ঘোষণা উদ্ধবের, প্রশ্নের মুখে মহারাষ্ট্র বিকাশ আগাড়ি

You might also like