Latest News

অনশনরত পড়ুয়াকে ভর্তি করতে হল সিসিইউ-তে, আরজি করে জট বাড়ছে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ১৫ দিনের অনির্দিষ্টকালীন অনশনের পরে আমরণ অনশনের ডাক দিয়েছিলেন আরজি করের (RG kar) পড়ুয়ারা। তার দু’দিনের মাথায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লেন শেখ রাজকুমার নামের এক ছাত্র। তিনি আন্দোলনের প্রথম দিন থেকেই অনশনরত। তাঁকে প্রথমে এমার্জেন্সিতে নিয়ে যাওয়া হয়। এর পরে শারীরিক অবস্থার বেশ অবনতি হতে থাকলে সিসিইউ-তে সরানো হয় তাঁকে। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলেই জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

এদিন আরজি কর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ পড়ুয়াদের কাছে গিয়ে আন্দোলন প্রত্যাহারের অনুরোধ করেছিলেন। কিন্তু তাতেও বরফ গলেনি। প্রিন্সিপালের পদত্যাগের দাবিতে অনড় আন্দোলনরত ডাক্তারি পড়ুয়ারা। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বারবার তাঁদের কাজে ফিরে আসার অনুরোধ জানায়। এমনকী জানিয়ে দেওয়া হয় তাঁদের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপও করা হবে না। কিন্তু অনশন-অবস্থানরত ডাক্তারি পড়ুয়াদের থেকে কোনও সদর্থক সাড়া মেলেনি।

ঝুনঝুনি লাগানো বলে কাদা মাঠে দাপালেন দৃষ্টিহীন ফুটবলাররা

পড়ুয়াদের বক্তব্য, আগে অনেক বার প্রতিশ্রুতি দিলেও তা পূরণ করা হয়নি। তাঁরা প্রতারিত হয়েছেন। তাঁদের দাবি মেনে নেওয়া হলে আন্দোলন তুলে নেবেন। আন্দোলনকারীরে ইন্টার্নদের দাবি, একেবারে দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছে। মুখে নানা আশ্বাস দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু বাস্তবে কাজের কাজ কিছু হচ্ছে না। বাস্তবে সমস্যা না মিটলে আন্দোলন চলবে। ফলে পড়ুয়াদের সঙ্গে কর্তৃপক্ষের আলোচনায় কোনও সমাধানসূত্র বের হয়নি।

অন্যদিকে, হাসপাতালে এখনও ব্যাহত পরিষেবা। চিকিৎসকের অভাবে অনেক রোগীকে ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ ওঠে। যদিও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি সব পরিষেবা চালু রয়েছে। স্বাস্থ্য দফতর থেকে হাসপাতালের সব বিভাগ সচল রাখতে নির্দেশ দেওয়া হয়।

এই পরিস্থিতিতে আরজি কর হাসপাতালের ডাক্তারি পড়ুয়াদের একাংশ কাজে ফিরতে শুরু করলেও, অনেকেই অনশন চালিয়ে যাচ্ছেন। আন্দোলন কতদিন চলবে সেই প্রশ্নই ঘুরে বেড়াচ্ছে। কোন পথে সমস্যার সমাধান, তা নিয়েই স্বাস্থ্য দফতরও আলোচনা চালাচ্ছে।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like