Latest News

Ram Navami: রাম নবমী পালনে সহযোগিতা করছে মমতার প্রশাসন, জানালেন বিশ্ব হিন্দু পরিষদ নেতা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: করোনার কারণে গত দু’বছর রাম নবমীর (Ram Navami) মিছিল, সমাবেশ করা যায়নি। এ বছর করোনা বিধি নিষেধ উঠে যাওয়ায় খুবই ধুমধাম করে পালিত হবে রাম নবমী। বাংলাতেও বিরাট আয়োজন হচ্ছে, জানালেন বিশ্ব হিন্দু পরিষদের (VHP) সর্ব ভারতীয় সম্পাদক সচ্চিদানন্দ সিংহ।

তিনি বলেন, ‘রাম নবমীকে আমরা সামাজিক উৎসবের রূপ দিতে চাইছি। রাম ও কৃষ্ণ হলেন দুই রাষ্ট্র পুরুষ। সেই কারণে জন্মাষ্টমীও সর্বজনীনভাবে পালনের উদ্যোগ দিন দিন বাড়ছে।’

বাংলায় এবার কেমন আয়োজন হচ্ছে রাম নবমী পালনের? বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে, দলের সব স্তরের নেতা-নেত্রীদের কোনও না কোনও অনুষ্ঠানে অংশ নিতে বলা হয়েছে। শোভাযাত্রার আয়োজন করবে মূলত বিশ্ব হিন্দু পরিষদ, হিন্দু জাগরণ মঞ্চ সহ আরএসএস -এর শাখা সংগঠনগুলি।

দক্ষিণ কলকাতায় ওই দিন চারটি বড় শোভাযাত্রার আয়োজন হবে। সেগুলি মিলিত হবে যাদবপুর ৮-বি বাসস্ট্যান্ডে। সেখানে যোগ দিতে পারেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। তবে তাঁর কর্মসূচি চূড়ান্ত হয়নি। বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা জানান, তিনি থাকবেন গড়িয়ার মিছিলে। তাঁর কথায়, আমাদের সব নেতা কর্মীই কোনও না কোনও অনুষ্ঠানে, মিছিলে অংশ নেবেন।

Image - Ram Navami: রাম নবমী পালনে সহযোগিতা করছে মমতার প্রশাসন, জানালেন বিশ্ব হিন্দু পরিষদ নেতা

তিলজলা এলাকায় একটি জমায়েতের আয়োজন বিগত কয়েক বছর যাবৎ হয়ে আসছে। সেটা এবারও হবে। উত্তর কলকাতাতেও হবে কয়েকটি মিছিল।

১২ তারিখ বালিগঞ্জ বিধানসভা ও আসানসোল লোকসভার উপ নির্বাচন। ওই দুই জায়গায় খুবই বড় আকারে রাম নবমী উদযাপনের ভাবনাচিন্তা চলছে গেরুয়া শিবিরে। সেগুলিতে যোগ দেবেন বিজেপির রাজ্য নেতারা। গত কয়েক বছর বিজেপির পাশাপাশি তৃণমূলের কিছু নেতাও জাঁকজমকপূর্ণভাবে রাম নবমী পালন করেছেন। এবার তাঁরা কী করবেন, এখনও জানা যায়নি।

বিশ্ব হিন্দু পরিষদ নেতা জানান, ১০ থেকে ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে উদযাপন। শোভাযাত্রা, সমাবেশ বেশি হবে আগামী রবিবার। তিনি আরও জানান, বাংলায় খুব কম করেও এক হাজার জায়গায় শোভাযাত্রা এবং ধর্মীয় সমাবেশের আয়োজন হবে।

বিশ্ব হিন্দু পরিষদের মুখপাত্র সৌরিশ মুখোপাধ্যায় বলেন, করোনার জন্য গত দু’বছর শোভাযাত্রা করা যায়নি। এবার তাই বড় আয়োজন হবে। প্রত্যেক জেলায় একটি করে কেন্দ্রীয় শোভাযাত্রা হবে। এছাড়া ব্লক পিছু হবে অন্তত একটি করে।

দিন কয়েক আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোাপাধ্যায় মন্ত্রিসভার বৈঠকে জানান, রাম নবমীর মিছিলে যেন বাধা দেওয়া না হয়। যারা করতে চায় করতে পারে। বিশ্ব হিন্দু পরিষদ নেতাও জানান, এখনও পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গ প্রশাসন সহযোগিতা করেছে। শোভাযাত্রা, জমায়েতে অনুমতি দিচ্ছে। এক দু জায়গায় মিছিলের রুট বদল নিয়ে আলোচনা চলছে। তবে আরও কয়েকটা দিন বাকি। দেখা যাক এই ধারা বজায় থাকে কিনা।

অতীতে, রাম নবমীর শোভাযাত্রায় অনুমতি দেওয়া, রুট বদল ইত্যাদি ঘিরে প্রশাসনের সঙ্গে মতবিরোধ, সংঘাত হয়েছে। এবার কি অবস্থা ভিন্ন? সচ্চিদানন্দ সিংহ বলেন, এখনই শেষ কথা বলার সময় আসেনি। তবে রাম নবমী পালন এখন আর শুধু বিশ্ব হিন্দু পরিষদের কর্মসূচি নেই। অনেকেই বুঝতে পারছেন এগুলির সঙ্গে মানুষের আত্মিক যোগকে অস্বীকার করার উপায় নেই।

You might also like