Latest News

সারমেয়দের জ্বালায় ঘুম ছুটেছে রাজভবনের! কুকুর ধরতে ফোন গেল পুরসভায়

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এমনিতেই রাজ্য সরকারের সঙ্গে আদায় কাঁচকলায় রাজভবনের প্রধান কর্তার। প্রায় প্রতিটি খুঁটিনাটি বিষয়ে দু’পক্ষের মধ্যে বিবাদ লেগেই থাকে। এবার রাজভবনের (Rajbhaban) নতুন মাথাব্যথা পথ কুকুর (Street Dog)। তাদের জ্বালায় অতিষ্ঠ রাজভবনের অন্দরমহল।

এমনিতে সেখানে আঁটোসাঁটো নিরাপত্তা বলয়। কিন্তু সেই বজ্রআঁটুনি তো মানুষের জন্য। পথ কুকুররা (Street Dog) কি আর নিরাপত্তার ঘেরাটোপ মানে না তারা জানে? তাই রাজভবনের (Rajbhaban) সমস্ত নিরাপত্তা বলয় ভেঙে বারবার ভিতরে ঢুকে পড়ছে কুকুরের দল। ফলত বজ্রআঁটুনি ফস্কা গেরো! এই জ্বালাতনের হাত থেকে বাঁচতে শেষমেশ রাজভবন থেকে ফোন গেল কলকাতা পুরসভার স্বাস্থ্যবিভাগে। সেখানে করুণ আর্তি- ‘দয়া করে কুকর তুলে নিয়ে যান। মাথা খারাপ করে দিচ্ছে!’ 

আরও পড়ুন: বেসরকারি স্কুলের ফি নির্ধারণে কমিশন, যত দ্রুত চালু হয় ততই মঙ্গল

এমনিতে প্রায় ২০০০ একর এলাকাজুড়ে রাজভবন। এদিক-ওদিক প্রচুর গাছ-গাছালি। ঠিকঠাক পরিষ্কার করা না হলে ঝোপঝাড় হয়ে থাকে রেলিংয়ের দিকে। মনে করা হচ্ছে, সেখানেই গলদ! রেলিংয়ের দিকের কোনও ফাঁকফোকর দিয়ে গলে রাজভবনের ভেতরে ঢুকে ডেরা বাঁধছে পথকুকুরের দল। তবে, এ উৎপাত নতুন নয়। কিছুদিন আগেও পুরকর্তাদের কাছে ফোন গিয়েছিল রাজভবনে থেকে। তখনও পুরসভা কুকুর ধরতে একটি দল পাঠিয়েছিল। অত বড় জায়গায় ঝোপঝাড়ের মধ্যে থেকে কোনওমতে দু’টি কুকুর ধরে ফেলা হয়। তাতে খানিক স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছিল রাজভবন।’ 

কিন্তু এবার ফের সেই একই জ্বালাতন ফের শুরু হয়েছে। সূত্রের খবর, সোমবার দুপুরে পুরসভার এক শীর্ষ আধিকারিককে ফোন করেন রাজভবনের এক অফিসার। বলা হয়, দু-তিনটি কুকুর ফের জ্বালাচ্ছে। তাদের যেন তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। স্বভাবতই এরপর লোক পাঠায় পুরসভা। কিন্তু এই সমস্যার দীর্ঘমেয়াদি সমাধান কি সম্ভব? তা জানা যায়নি।

You might also like