Latest News

‘রাজনীতির ময়দান আমার জন্য নয়’, দ্য ওয়ালকে জানিয়ে দিলেন ঝুলন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তিনি যেন রাতারাতি প্রাক্তনদের তালিকায় পড়ে গেলেন। ঝুলন গোস্বামী (Jhulan Goswami Politics) হয়তো খেলা চালিয়ে যাবেন, তাঁকে দেখা যাবে ঘরোয়া ক্রিকেটে, কিংবা মহিলাদের আইপিএলে (Women IPL)। কিন্তু দেশের হয়ে খেলার চাপ, অনবরত অনুবীক্ষণে তাঁকে বসতে হবে না।

বয়স একটি সংখ্যা মাত্র, চাকদহ এক্সপ্রেসের (Chakdah Express) ক্ষেত্রেও সেটি বড় বেশি প্রযোজ্য। সামনের মাসে ৪০ বছরে পা দেবেন, কিন্তু সদ্য অবসরের পরেও দেখলে মনে হবে এই বুঝি মাঠ থেকে সোজা এলেন। সেই একইরকম এনার্জি, আর স্বতঃস্ফূর্ততা।

পুজোয় বড় উপহার, ইস্টবেঙ্গলের আগে সরল ইমামি! আইএসএলে খেলবে ‘ইস্টবেঙ্গল এফসি’

অবসর মানে অখন্ড সময় যাপন, তাই কী করে সময় কাটবে, প্রশ্নের জবাবে বলে দিয়েছেন, ‘‘সময় ঠিক চলে যাবে, ক্রিকেট নিয়েই তো থাকব। বাংলা দলের মেন্টরের পদে রয়েছি, কোচিং নিয়েও ভাবতে বসব। ক্রিকেট ছাড়তে পারব না আমি।’’

দেশের অনেক ক্রীড়াবিদই খেলা থেকে ছুটি নেওয়ার পরে পাকাপাকিভাবে এসেছেন রাজনীতির মাঠে। রাজ্যবর্ধন সিং রাঠোর থেকে গৌতম গম্ভীর, কিংবা মনোজ তিওয়ারি থেকে অশোক দিন্দা, অনেকেই এই তালিকায় রয়েছেন। ঝুলনকে যদি কোনও দল এমন প্রস্তাব দেন, কী করবেন?

জবাবে দ্য ওয়ালকে একান্ত সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে বলেছেন, ‘‘রাজনীতি আমার দ্বারা হবে না, আমি ওই ময়দানে অচল। দেশের হয়ে এতদিন ক্রিকেট খেলেছি, তারপর দেশকে ফিরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা থাকবে। তার জন্য রাজনীতি করতে হবে, এমনটা নয়। আমি রাজনীতি বুঝি না একেবারেই।’’

এমন কোনও পরিস্থিতি এল, যেদিন কোনও রাজনৈতিক দল ব্ল্যাঙ্ক চেক নিয়ে হাজির থাকবে আপনার কাছে, সেদিন কী হবে? মহিলা ক্রিকেটের কিংবদন্তির সোজাসাপটা মন্তব্য, ‘‘আমি এসব ভাবিই না, আর এরকম কোনও পরিস্থিতি আসতে পারে, কল্পনাও করি না। তাই এই নিয়ে আমার কোনও উচ্চবাচ্য নেই।’’

বোঝাই গিয়েছে, ২০৫টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার মালকিন ক্রিকেটের সঙ্গেই থাকবেন। যিনি বলছেনও, কোচিং আমাকে শিখতে হবে। তারপর আমি কোচিংয়ে যাব। পাশাপাশি মহিলা ক্রিকেটের কাঠামো বদল চান, তার জন্য চোখ প্রশাসনিক কোনও পদ। ঝুলনের দৌড় থামবে না।

You might also like