Latest News

একের পর এক সন্তান বিক্রি! প্রতিবেশীদের নালিশে শ্রীঘরে সাঁকরাইলের বাবা-মা, দালাল

দ্য ওয়াল ব্যুরো, হাওড়া: নিজেদের একের পর এক সন্তানকে বেচে (Child Selling) দিচ্ছিল বাবা-মা। বিষয়টি নজরে আসে প্রতিবেশীদের। তারপর তাদের অভিযোগের ভিত্তিতেই সন্তান বিক্রিকারী দম্পতি বিশ্বজিৎ বর ও রত্না বরকে গ্রেফতার করেছে সাঁকরাইল থানার পুলিশ (Parents Arrested)।

জানা গিয়েছে, লকডাউনের সময় ২০২০ সালে বিশ্বজিৎ ও রত্নার একটি মেয়ে হয়। উলুবেড়িয়ায় তাদের মেয়েকে বিক্রি করে দেয় ওই দম্পতি। তখন থেকেই সন্তান বিক্রি শুরু বিশ্বজিৎ ও রত্নার। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে সাঁকরাইলের উলা গ্রামে তাদের বাড়ি। বিশ্বজিৎ তেমন কাজকর্ম করতেন না। তিনি স্ত্রীকে নিয়ে শ্বশুরবাড়িতেই থাকতেন।

মাস দেড়েক আগে বর দম্পতির এক পুত্র সন্তানের জন্ম হয়। তাদের ছেলেকে নলপুরে ওই দম্পতি বিক্রি করে দেয় বলে অভিযোগ। বিশ্বজিৎ ও রত্নার আরও দুই সন্তান রয়েছে। এবার ওই দুই শিশুকেও বিক্রির চেষ্টা চালাচ্ছিলেন তারা। কিন্তু তা আর হয়ে ওঠেনি। স্থানীয় বাসিন্দারা বুধবার পুরো ঘটনা পুলিশকে জানালে সাঁকরাইল থানা তাদের গ্রেফতার করে। এই ঘটনায় শিশু বিক্রির দালাল চক্রের সঙ্গে যোগের সন্দেহে শ্যামলী নস্কর নামে আরও এক মহিলাকে নলপুর থেকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। ওই এলাকার বাসিন্দা সন্ধ্যা পট্টনায়ক বলেন, টাকার জন্য কোনও বাবা-মা যে নিজের সন্তানদের বিক্রি করতে পারে তা ভাবতেই পারছেন না।

পরীক্ষা চলছে তাতে কী! কেতুগ্রামের স্কুলেই হল দুয়ারে সরকারের ক্যাম্প

বৃহস্পতিবার ধৃতদের হাওড়া আদালতে তোলা হয়। জুভেনাইল জাস্টিস কেয়ার অফ চিলড্রেন অ্যাক্টে ধৃতদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ। আদালতে পুলিশ ধৃতদের নিজেদের হেফাজতে রাখার আবেদন জানায়। ভারপ্রাপ্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সেই আবেদন মঞ্জুর করে ধৃতদের পাঁচদিন পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন। বিশ্বজিৎ-রত্না ও শ্যামলীকে জেরা করে বিক্রি হয়ে যাওয়া শিশুদের উদ্ধারের পাশাপাশি পুলিশ ওই চক্রের বাকি পাণ্ডাদের খোঁজ পেতে চাইছে।

You might also like